অবৈধ কয়লা মজুতকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র বীরভূম, পুলিশ স্থানীয়দের খণ্ডযুদ্ধে আহত একাধিক

অবৈধ কয়লা মজুতকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র বীরভূম, পুলিশ স্থানীয়দের খণ্ডযুদ্ধে আহত একাধিক

অবৈধভাবে কয়লা মজুতকে কেন্দ্র করে শুক্রবার উত্তপ্ত হয়ে উঠল বীরভূমের খয়রাশোল ব্লকের অন্তর্গত নওপাড়া। এদিন লোকপুর থানার অন্তর্গত এই এলাকায় অবৈধ কয়লা মজুত রুখতে গেলে পুলিশের সঙ্গে গ্রামবাসীদের খন্ডযুদ্ধ বাঁধে। এই ঘটনায় একাধিক পুলিশ কর্মী এবং গ্রামবাসীরা আহত হয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।

গত কয়েকদিন ধরেই জেলাজুড়ে অবৈধ কয়লা রাস্তায় যাতায়াতের সময় আটক শুরু করে বীরভূম জেলা পুলিশ। পাচার হওয়া অবৈধ কয়লা নিয়ে প্রতিটি থানা ধরপাকড় শুরু করেছে। ইতিমধ্যে আজ দুপুরে বিশাল পুলিশ বাহিনী খয়রাশোল ব্লকের লোকপুর থানা এলাকার নওপাড়া গ্রামে অবৈধ কয়লা উদ্ধার করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে গ্রামবাসীদের খণ্ডযুদ্ধ শুরু হয়।

গ্রামবাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইঁটপাটকেল ছোঁড়ে বলে অভিযোগ। পাশাপাশি পুলিশও টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটিয়েছে বলে অভিযোগ। খণ্ডযুদ্ধে কয়েকজন গ্রামবাসীর পাশাপাশি বেশ পুলিশ আহত হয়েছেন। প্রত্যেকেই নাকড়াকোন্দা প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয়। কয়লা উদ্ধার করতে পুলিশের তরফ থেকে একটি ডাম্পার নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। যেটিতে গ্রামবাসীরা আগুন ধরিয়ে দেয়।

পাশাপাশি দুবরাজপুর থানার যশপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সালুঞ্চি গ্রামে অবৈধ কয়লা উদ্ধারের কাজও চালাচ্ছে দুবরাজপুর থানার পুলিশ। এখান থেকে প্রচুর পরিমাণ অবৈধ কয়লা উদ্ধার করে দুবরাজপুর থানার পুলিশ।

জানা যাচ্ছে, ঝাড়খন্ড লাগোয়া লোকপুর থানার অন্তর্গত নওপাড়া এলাকায় দীর্ঘদিন ধরেই অবৈধভাবে কয়লা মজুত রাখার অভিযোগ রয়েছে। ঝাড়খন্ড থেকে সেই সকল কয়লা এনে মজুত রাখার কাজ করে গ্রামবাসীরা। সেই সকল কয়লা উদ্ধার করতে গিয়েই শুক্রবার এমন খন্ডযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এই মুহূর্তে এলাকায় বিশাল পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে এবং এলাকা থমথমে রয়েছে।

আরো পড়ুন