আদালতের রায়ে সাময়িক স্বস্তি বিশ্বভারতীর তিন বরখাস্ত হওয়া পড়ুয়ার

আদালতের রায়ে সাময়িক স্বস্তি বিশ্বভারতীর তিন বরখাস্ত হওয়া পড়ুয়ার

গত ২৩ অগাস্ট রাতে বিশ্বভারতীর অর্থনীতি বিভাগের তিন পড়ুয়া সোমনাথ সৌ, হিন্দি শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের ছাত্রী রূপা চক্রবর্তী ও অপর ছাত্রনেতা ফাল্গুনী পানকে ৩ বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়। সিদ্ধান্ত লিখিতভাবে জানায় বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। এরপর থেকেই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতে থাকে। বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানান পড়ুয়ারা। কর্তৃপক্ষ তা না মানলে অবস্থান বিক্ষোভে বসেন আন্দোলনকারী পড়ুয়ারা। বর্তমানে সেই অবস্থান বিক্ষোভ অনশন মঞ্চে পরিণত হয়েছে।

অন্যদিকে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিশ্বভারতীর পাশাপাশি এই পড়ুয়ারাও হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়। সেই মামলায় শুনানিতে বুধবার আদালতের রায়ে সাময়িক স্বস্তি মেলে বহিষ্কৃত পড়ুয়াদের। হাইকোর্টের বিচারপতি এদিন উপাচার্যের সিদ্ধান্তকে ‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’ বলে জানান। পড়ুয়াদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের উপর অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশ জারি করা হয়। তবে এর পাশাপাশি পড়ুয়াদের সবধরণের বিক্ষোভ কর্মসূচি প্রত্যাহার করতে হবে এমনটাও জানিয়ে দেয় আদালত।

আরো পড়ুন