এই ১১ জেলায় বইবে শৈত্যপ্রবাহ, সতর্ক করল হাওয়া অফিস

এই ১১ জেলায় বইবে শৈত্যপ্রবাহ, সতর্ক করল হাওয়া অফিস

নিজস্ব প্রতিবেদন : হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস আগেই ছিল, ১৫ ডিসেম্বর থেকে জাঁকিয়ে শীত পড়বে বাংলায়। সেই পূর্বাভাস কি সত্যি করে গত ১৯ ডিসেম্বর থেকে হাড় কাঁপানো ঠান্ডায় কাঁপছে বাংলা। এই হাড় কাঁপানো শীতের মাঝেই এবার শৈত্যপ্রবাহের সর্তকতা জারি করা হলো হাওয়া অফিসের তরফ থেকে।

এখনো পর্যন্ত রাজ্যজুড়ে তাপমাত্রার যে পতন লক্ষ্য করা গিয়েছে তাতে সোমবার ছিল মরসুমের শীতলতম দিন। সবচেয়ে বেশি তাপমাত্রার পতন হয়েছিল বীরভূমে। দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যদিও এই তাপমাত্রা কিছুটা হলেও বৃদ্ধি পেয়েছে মঙ্গলবার। মঙ্গলবার দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

অন্যদিকে আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফ থেকে যে রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, মঙ্গলবার দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এই তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় তিন ডিগ্রী কম। পাশাপাশি হাওয়া অফিসের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, আকাশ পরিষ্কার থাকার কারণে তাপমাত্রার এই পতন অব্যাহত থাকবে।

আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফ থেকে রাজ্যের যে ১১ জেলায় শৈত্যপ্রবাহের সর্তকতা জারি করা হয়েছে সেই সকল জেলাগুলি হল উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, নদিয়া, দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বীরভূম, বাঁকুড়া, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান। তবে সোমবারের তুলনায় শৈত্যপ্রবাহের তীব্রতা কিছুটা কমবে বলেও পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার থেকে পুনরায় রাতে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে অনুমান করছে হাওয়া অফিস। তবে বড় দিন অর্থাৎ ২৫ ডিসেম্বর তাপমাত্রা আরও কমতে পারে বলে জানা যাচ্ছে হাওয়া অফিস সূত্রে। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, সোমবারের তুলনায় ২৫ ডিসেম্বর তাপমাত্রার পারদ আরও ২ থেকে ৩ ডিগ্রি কমতে পারে।

আরো পড়ুন