একাধিক ধারায় মামলা, হাজিরা দিতে বীরভূমে বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল

একাধিক ধারায় মামলা, হাজিরা দিতে বীরভূমে বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল

ভোট-পরবর্তী হিংসার ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করাকে কেন্দ্র করে আসানসোল দক্ষিণের বিজেপি বিধায়ক তথা রাজ্য মহিলা মোর্চা সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পলের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে বীরভূম জেলা সাইবার ক্রাইম পুলিশ। এই সকল মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আজ শুক্রবার এই বিজেপি বিধায়ক হাজিরা দিলেন সাইবার ক্রাইম পুলিশ স্টেশনে।

বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল জানান, “ভোটের ফলাফল বের হওয়ার পর রাজ্যের বিভিন্ন জায়গার পাশাপাশি বীরভূমেও একাধিক হিংসার ঘটনা ঘটেছে। আর এই সকল ঘটনার সময় নানুরের বেশ কয়েকজন মহিলা বিজেপির কার্যকর্তা ধর্ষণ অথবা গণধর্ষণের শিকার হন। যার পরিপ্রেক্ষিতে আমি একটি টুইট করেছিলাম। তারই পরিপ্রেক্ষিতে সাইবার সেল পুলিশ মামলা রুজু করেছে।”

জানা গিয়েছে, বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পলের বিরুদ্ধে ৫০১, ৫০২, ৫০৫, ৫০৬, ৫০৯ আইপিসি, ৬৬ আইপি অ্যাক্ট এই সকল ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল জানান, পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসা করেন কিসের ভিত্তিতে তিনি এই টুইট করেছেন? তার উত্তরে অগ্নিমিত্রা পল জানিয়েছেন, রাজ্য মহিলা মোর্চার সভানেত্রী হওয়ার দরুণ ওই সকল মহিলারাই তাকে ফোন করেছিলেন। তারই পরিপ্রেক্ষিতে তিনি ওই টুইট করেছিলেন।

যদিও ভোট-পরবর্তী হিংসার ঘটনা নিয়ে সেই সময় বীরভূম জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্র নাথ ত্রিপাঠী সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়েছিলেন, বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা ঘটে থাকলেও ধর্ষন অথবা গণধর্ষণের মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি।

একইভাবে বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল নানুরের এক মহিলাকে বোলপুরে তৃণমূল কার্যালয়ে এনে সাংবাদিক বৈঠক করেছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে ছিল ওই মহিলাকে নাকি গণধর্ষণ করা হয়েছে। কিন্তু ওই মহিলাও সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জানিয়েছিলেন, তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। ভোটে হারার পর তিনি ভয়ে বাপের বাড়ি চলে গিয়েছিলেন।

আরো পড়ুন