‘কটা পাতাখোর নেশাখোর লোককে দিয়ে ভোট হয় না’, অনুব্রত মণ্ডল

‘কটা পাতাখোর নেশাখোর লোককে দিয়ে ভোট হয় না’, অনুব্রত মণ্ডল

নিজস্ব প্রতিবেদন : বুধবার পৌরসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পরেই লক্ষ্য করা যায় রাজ্যে অভূতপূর্ব ফলাফল করেছে শাসকদল তৃণমূল। অধিকাংশ পৌরসভা নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা শাসকদল তৃণমূলের অধীনে এসেছে। আর এই জয়ের পরেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন অনুব্রত মণ্ডল।

বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েই নিজের চিরাচরিত অভ্যাসের পরিপ্রেক্ষিতে বিরোধীদের তুলোধোনা করতে শুরু করেন। তবে উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো এদিন তিনি বিজেপি এবং কংগ্রেসকে তুলোধোনা করলেও বামফ্রন্টের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন। অনুব্রত মণ্ডলের এহেন আচরণের পরিপ্রেক্ষিতে বঙ্গ রাজনীতিতে নতুন সমীকরণ তৈরি হচ্ছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহল।

অনুব্রত মন্ডল বলেন, ‘বামেদের সংগঠন আছে বলেই তারা আজ জয়লাভ করেছে। আর বিজেপি একটা ভাওতাবাজি দল। মানুষকে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে আজ এই জায়গায় নিয়ে এসেছে। কটা পাতাখোর নেশাখোর নেতাদের দিয়ে ভোট হয় না।’ এর পাশাপাশি তিনি জানান, ‘এবার তো বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে। তাহলে কেন বিজেপি মনোনয়নপত্র জমা দিল না?’

অন্যদিকে পৌরসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভের পরেই প্রসঙ্গ ওঠে পঞ্চায়েত নির্বাচনের। পঞ্চায়েত নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি আশ্বাস দেন, ‘কোনো বিডিও অফিস ঘেরাও করা হবে না, মমতা ব্যানার্জি যেভাবে বলবেন সেভাবেই ভোট হবে। যে কেউ মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন।’

তবে রাজ্যে একটি পৌরসভা বামেদের দখলে যাওয়ার জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশও করেছেন। অন্যদিকে বিজেপিকে কটাক্ষ করার পাশাপাশি কংগ্রেসকেও এক হাত নিতে দেখা গিয়েছে তাকে। এ প্রসঙ্গে মুর্শিদাবাদের উদাহরণ টেনে বলেন, ‘যে জায়গাকে অধীরের গড় হিসাবে বলা হয়ে থাকে সেই জায়গায় কটা সিট পেল কংগ্রেস?’

আরো পড়ুন