কনকনে ঠাণ্ডায় কাঁপছে একাধিক জেলা, এই দিন থেকে বাড়বে তাপমাত্রা

কনকনে ঠাণ্ডায় কাঁপছে একাধিক জেলা, এই দিন থেকে বাড়বে তাপমাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদন : কনকনে ঠান্ডা। মঙ্গলবার সকাল থেকেই বীরভূম সহ পশ্চিমের একাধিক জেলায় লক্ষ্য করা গিয়েছে কুয়াশা। মঙ্গলবারের পাশাপাশি সেই কুয়াশার দাপট রয়েছে বুধবারও। এই কুয়াশা এবং দ্রুত গতিতে তাপমাত্রার পতনের কারণে এই কনকনে শীত অনুভূত হচ্ছে।

দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমের জেলাগুলি বিশেষ করে বীরভূম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়ায় এই মুহূর্তে শীতের দাপট সবচেয়ে বেশি। এইসকল জেলাগুলির সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ঘোরাফেরা করছে ৯ থেকে ১১ ডিগ্রির মধ্যে। শ্রীনিকেতন হাওয়া অফিস সূত্রে জানা গিয়েছে বুধবার দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৯.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের তুলনায় ১° কম। বীরভূমের এই তাপমাত্রা পশ্চিমের জেলাগুলির মধ্যে সর্বনিম্ন।

অন্যদিকে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর থেকে পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী জানা যাচ্ছে বুধবার কলকাতা এবং তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এই তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় ১° কম। তবে তাপমাত্রার এই নিম্নমুখী ভাব বজায় থাকবে বুধবার পর্যন্তই।

বীরভূমের এক স্থানীয় বাসিন্দা নিমাই মন্ডল জানিয়েছেন, “মঙ্গলবার থেকে কুয়াশা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বুধবার ফের কুয়াশা লক্ষ্য করা গিয়েছে। তাপমাত্রার পারদ অনেকটাই নেমে গিয়েছে। যা ভাবা হচ্ছিল তার থেকেও বেশি শীত পড়েছে জেলায়।”

তবে এই শীত দীর্ঘস্থায়ী হবে না বলেই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। জোড়া পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে বৃহস্পতিবার থেকেই তাপমাত্রার পারদ ঊর্ধ্বমুখী হবে। এরপর সপ্তাহ খানেক সেইভাবে শীত অনুভূত হবে না এমনটাই পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে। এর পাশাপাশি ফের একবার বৃষ্টির দেখা মিলতে পারে বলেও পূর্বাভাস হাওয়া অফিসের।

আরো পড়ুন