কলকাতায় কোটি কোটি, বীরভূমে লক্ষ লক্ষ, একের পর এক জায়গায় উদ্ধার টাকা

কলকাতায় কোটি কোটি, বীরভূমে লক্ষ লক্ষ, একের পর এক জায়গায় উদ্ধার টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদন : এসএসসি দুর্নীতি মামলায় তদন্তি নামে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই এবং ইডি। গত সপ্তাহের শুক্রবার থেকে ইডি অভিযান শুরু করার পর একের পর এক জায়গা থেকে উদ্ধার হচ্ছে কোটি কোটি টাকা। এই মামলায় অভিযুক্ত রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঘনিষ্ঠ অর্পিতার দুটি ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় প্রায় ৫০ কোটি টাকা। এছাড়াও রয়েছে অন্যান্য ধনসম্পত্তি।

তবে এসবের মধ্যেই এবার বীরভূমের বিভিন্ন জায়গা থেকে উদ্ধার হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। বীরভূমের উদ্ধার হওয়া এই বিপুল পরিমাণ টাকা অবশ্য কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডির আধিকারিকরা উদ্ধার করেননি। উদ্ধার করছে খোদ বীরভূম পুলিশ। তবে এইভাবে পরপর টাকা উদ্ধারের ঘটনায় জেলার বাসিন্দাদের মধ্যে বাড়ছে কৌতূহল।

১৬ এবং ১৭ জুলাই মুরারই থানার অন্তর্গত নতুন বাজার এলাকায় থাকা বন্ধন ব্যাংকে ৬ লক্ষ টাকা চুরির ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার তদন্তে নেমে গত বৃহস্পতিবার মুরারই থানার পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করার পাশাপাশি প্রায় ২ লক্ষ টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। এই ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া দুই ব্যক্তির নাম চাঁদ মহঃ খান এবং সেলিম শেখ।

ধৃত দুজনের মধ্যে একজনের বাড়ি ঝাড়খন্ড এবং অন্যজনের বাড়ি মুরারই থানার অন্তর্গত মহুল্লাডাঙ্গা। শুক্রবার ধৃত এই দুজনকে রামপুরহাট মহকুমা আদালতে পেশ করা হয় এবং তাদের তদন্তের জন্য পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়।

অন্যদিকে এই ঘটনা রেস কাটতে না কাটতে শনিবার নানুর থানা এলাকায় উদ্ধার হয় ৫ বস্তা ভর্তি কয়েন। ১ টাকা এবং ২ টাকার এই কয়েনগুলি একটি বাসে চাপিয়ে মুর্শিদাবাদ থেকে কলকাতা নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বলে জানা যাচ্ছে পুলিশ সূত্রে। পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে হানা দেয় এবং পালিতপুর মোড়ের কাছে সেই কয়েনগুলি উদ্ধার করে। উদ্ধার হওয়া কয়েনের পরিমাণ আড়াই লক্ষ টাকা। যদিও এই ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

আরো পড়ুন