কাঁকড়তলা থানার পক্ষ থেকে একগুচ্ছ প্রয়াসের সূচনা

কাঁকড়তলা থানার পক্ষ থেকে একগুচ্ছ প্রয়াসের সূচনা

সেখ ওলি মহম্মদ:-

পুলিশের মানবিক মুখ আমরা প্রায়শই দেখতে পায়। পুলিশ যে মানুষের বন্ধু তা আজ দেখতে পাওয়া গেল খয়রাশোল ব্লকের কাঁকড়তলা থানার রসা রাজলক্ষ্মী উচ্চ বিদ্যালয়ে। মানব সেবায় নিয়োজিত হয়ে আজ মানুষের স্বার্থে বীরভূম জেলা পুলিশের উদ্যোগে এবং কাঁকড়তলা থানার পুলিশের পক্ষ থেকে এক গুচ্ছ প্রয়াসের সূচনা করা হল। এদিন রসা রাজলক্ষ্মী উচ্চ বিদ্যালয়ে কাঁকড়তলা থানার পুলিশের পক্ষ থেকে “আপনার সুরক্ষা আমাদের লক্ষ্য” নামে একটি প্রয়াসের মাধ্যমে চক্ষু পরীক্ষা, করোনার জন্য টীকাকরন শিবির, ২০২১ সালে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় কৃতী ছাত্র ছাত্রীদের সংবর্ধনা প্রদান, আজ জাতীয় ক্রীড়া দিবস উপলক্ষে স্থানীয় ফুটবল প্রেমীদের ফুটবল প্রদান, পথ নিরাপত্তা সচেতনতার জন্য হেলমেট প্রদান করা হয়। এদিন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীরভূম জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী। তিনি ছাড়াও এদিন উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বোলপুর) সুরজিৎ কুমার দে, ডিএসপি (ক্রাইম) ফিরোজ হোসেন, দুবরাজপুর সার্কেল ইন্সপেক্টর আস্তিক মুখার্জী, কাঁকড়তলা থানার ওসি জাহিদুল ইসলাম, দুবরাজপুর আদালতের APP রাজেন্দ্র প্রসাদ দে, খয়রাশোল ব্লকের বিডিও পৃথ্বিশ দাশ, বিশিষ্ট সমাজসেবী তথা শিক্ষক কাঞ্চন অধিকারী সহ আরো অনেকে। এদিন পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী জানান, আমরা মানুষের কথা ভেবে কলকাতার শংকর নেত্রালয়ের ডাক্তারবাবুরা এসেছেন তাঁরা এখানে চক্ষু পরীক্ষা করছেন। যাঁদের চশমার প্রয়োজন হবে তাঁদের বিনামূল্যে পুলিসের পক্ষ থেকে দেওয়া হবে এবং যাঁদের ছানি অপারেশন করতে হবে তাঁদের আমরা গাড়ী করে নিয়ে যাব এবং নিয়ে আসব। পাশাপাশি আজ জাতীয় ক্রীড়া দিবস তাই ফুটবল বিতরণ করা হল। পথ নিরাপত্তা সচেতনতার জন্য হেলমেট প্রদান এবং ২০০ মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হল। তিনি আরো জানান, পুলিশ হচ্ছে মানুষের বন্ধু। পুলিশকে দেখে আগে মানুষ ভয়ে পালিয়ে যেত কিন্তু পুলিশ আছে দুষ্কৃতীদের দমন করার জন্য।

আরো পড়ুন