কার্যত লকডাউনের মেয়াদ বাড়ালো রাজ্য, মিললো একাধিক ক্ষেত্রে ছাড়, রইলো তালিকা

কার্যত লকডাউনের মেয়াদ বাড়ালো রাজ্য, মিললো একাধিক ক্ষেত্রে ছাড়, রইলো তালিকা

নিজস্ব প্রতিবেদন : আগের ঘোষণা অনুযায়ী রাজ্যে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে যে বিধি-নিষেধ জারি করা হয়েছিল তার মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ৩০ জুন। তবে তার আগেই সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই কার্যত লকডাউনের মেয়াদ আরও বাড়িয়ে দিলেন। নতুন ঘোষণা অনুযায়ী এই কার্যত লকডাউন চলবে আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত। তবে এই বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ানো হলেও একাধিক ক্ষেত্রে দেওয়া হয়েছে নতুন ছাড়।

১) জুলাই মাস থেকে চালানো যাবে যাত্রীবাহী সরকারি ও বেসরকারি বাস। যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে বাসগুলি চালাতে হবে।

২) সেলুন এবং পার্লার খোলার ক্ষেত্রে অনুমোদন দেওয়া হল। সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত এগুলি খুলে রাখা যাবে। ৫০ শতাংশ গ্রাহক নিয়ে খুলতে হবে সেলুন এবং পার্লার।

৩) সমস্ত বেসরকারি অফিস খুলতে পারা যাবে জুলাই থেকে। তবে কর্মী সংখ্যা ৫০ শতাংশের বেশি হলে হবে না। সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৪ টে পর্যন্ত অফিস খোলার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

৪) কর্মীদের যাতায়াতের ব্যবস্থা করতে হবে বেসরকারী অফিস অর্থাৎ সংস্থাকেই।

৫) সমস্ত রকমের খুচরো দোকান খোলার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। এখন থেকে খুচরো দোকান খুলে রাখা যাবে সকাল ১১ টা থেকে রাত্রি ৮টা পর্যন্ত।

৬) জিম খোলার ক্ষেত্রে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তবে ৫০ শতাংশ লোক নিয়ে খুলতে হবে জিম।

৭) মাছ এবং সবজি বাজার খোলার সময় সীমা বাড়ানো হয়েছে। সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত খুলে রাখা যাবে সবজি বাজার ও মাছ বাজার।

৮) লোকাল ট্রেন এখনই চালু হচ্ছে না। লোকাল ট্রেন চালানোর মতো এখনো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

৯) বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৫০ জন হাজির থাকতে পারবেন।

১০) রাজনৈতিক থেকে ধর্মীয় এবং অন্যান্য সামাজিক অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে উপস্থিত থাকতে পারবেন সর্বোচ্চ ২০ জন।

১১) স্টাফ স্পেশাল ট্রেন এবং স্পেশাল ট্রেন ও স্পেশাল মেট্রো ট্রেন যেমন চলছে তেমনই চলবে।

১২) রাত্রি ৯টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না।

আরো পড়ুন