খেলা দিবসের শেষ লগ্নে সোমবার সন্ধেয় তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত দুর্গাপুর

খেলা দিবসের শেষ লগ্নে সোমবার সন্ধেয় তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত দুর্গাপুর।জখম দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন।ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী

খেলা দিবসের পরই দুর্গাপুরে তৃণমূলের প্রবল গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। ৯ নম্বর ওয়ার্ডের অন্তর্গত ইস্পাত নগরীর এজোনের সেকেন্ডারিতে সোমবার সন্ধ্যে নাগাদ এই গন্ডগোল বাঁধে।অভিযোগ তৃণমূল নেতা জয়ন্ত রক্ষিতের সাথে ৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন পুরপিতা পল্লব রঞ্জন নাগের অনুগামীদের মধ্যে ব্যাপক হাতাহাতি হয়।গুরুতর জখম হয় তৃণমূল নেতা জয়ন্ত রক্ষিত,তাকে দুর্গাপুর ইস্পাত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে দুর্গাপুর থানার পুলিশ,নামানো হয় কমব্যাকক্ট ফোর্স।বেশ কয়েকটি বাইক ভাঙচুর করা হয়।তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষের জেরে উত্তেজনা ছড়ায়।ন নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলার পল্লব রঞ্জন নাগের অভিযোগ,দলের নেতা জয়ন্ত রক্ষিত দলের এক মহিলা কর্মীকে শ্লীলতাহানি করে এরপর তৃণমূল মহিলা কর্মীদের রোষের মুখে পড়ে,গত লোকসভা নির্বাচনে এই জয়ন্ত রক্ষিতরা দলের সাথে স্যাবোটাজ করে দলকে হারিয়েছিল আজ দলের সংগঠন যখন মজবুত হচ্ছে ঠিক তখনই দলের ভাবমুর্তি নষ্ট করতে জয়ন্ত রক্ষিত ও তার অনুগামীরা এইসব নাটক করছেন।অন্যদিকে তৃণমূল নেতা জয়ন্ত রক্ষিতের অনুগামীরা পাল্টা অভিযোগ এনেছে দলের প্রাক্তন কাউন্সিলার পল্লব রঞ্জন নাগের বিরুদ্ধে,দলের এক নম্বর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের কোর কমিটির সদস্য চিরঞ্জিত মুখার্জীর পাল্টা অভিযোগ,দলের প্রাক্তন কাউন্সিলার পল্লব রঞ্জন নাগের নেতৃত্ব এই হামলা হয়েছে,অবিলম্বে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছে জয়ন্ত রক্ষিতের অনুগামীরা। তৃণমূল নেতাদের দুই গোষ্ঠীর দ্বন্দে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে ইস্পাত নগরীতে।বিজেপি নেতৃত্ব এই ইস্যুতে সুর চড়িয়েছে।

আরো পড়ুন