জোড়া নিম্নচাপের চোখরাঙানি, থমকে যাবে শীতের আমেজ, কি বলছে হাওয়া অফিস

জোড়া নিম্নচাপের চোখরাঙানি, থমকে যাবে শীতের আমেজ, কি বলছে হাওয়া অফিস

নিজস্ব প্রতিবেদন : শেষ নিম্নচাপ এবং সেই বৃষ্টির রেশ কাটার পর ধীরে ধীরে পশ্চিমবঙ্গের অধিকাংশ জেলার তাপমাত্রার পারদ নামছে। ইতিমধ্যেই দক্ষিণবঙ্গের অধিকাংশ জেলার তাপমাত্রা সর্বনিম্ন পারদ নেমেছে ২০ ডিগ্রির নিচে। অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমের জেলাগুলিতে তাপমাত্রা সর্বনিম্ন পারদ নেমেছে ১৫ ডিগ্রীর নিচে অথবা আশে পাশে। শীতের আমেজ পশ্চিমের জেলাগুলিতে ভালোভাবে শুরু হলেও দক্ষিণের জেলাগুলিতে হালকা আমেজ শুরু হয়েছে।

কিন্তু প্রশ্ন উঠছে এই শীতের আমেজ কত দিন স্থায়ী হবে? কারণ ইতিমধ্যেই জোড়া নিম্নচাপের চোখরাঙানি শুরু হয়েছে, এমনটাই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। এই জোড়া নিম্নচাপের চোখরাঙানির কারণে ফের একবার দক্ষিণবঙ্গের অধিকাংশ জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আশঙ্কা করছে হাওয়া অফিস।

হাওয়া অফিস সূত্রে জানা গিয়েছে, আরব সাগর এবং বঙ্গোপসাগরে ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে জোরালো নিম্নচাপ ক্ষেত্র। জোড়া এই নিম্নচাপের প্রভাব ইতিমধ্যেই দেশের বেশ কিছু রাজ্যে পড়তে শুরু করেছে। তামিলনাড়ুতে শুরু হয়েছে বৃষ্টি। এর পাশাপাশি বঙ্গোপসাগরে যে নিম্নচাপ ক্ষেত্র তৈরি হয়েছে সেটি ঘূর্ণাবর্তে পরিণত হলে ফের একবার প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা অন্ধ্রপ্রদেশ, ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গে।

হাওয়া অফিসের তরফ থেকে যে সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছে সেই পূর্বাভাস অনুযায়ী, বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপ ঘূর্ণাবর্তে পরিণত হলে বৃষ্টির পাশাপাশি বইবে জোরালো হাওয়া। ঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার থেকে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে। এর পাশাপাশি উত্তরে হাওয়ার দাপট কমবে অনেকটাই। থমকে যাবে শীতের আমেজ।

আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফ থেকে দেওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, আগামী ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত আকাশ পরিষ্কার থাকলেও ৫ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে ঘনঘটা। শ্রীনিকেতন হওয়া অফিসের তরফ থেকেও যে রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে, রাতেও একই কথায় জানানো হয়েছে।

আরো পড়ুন