ডিসেম্বরে দুদিন ব্যাঙ্ক বন্ধের আশঙ্কা, ভোগান্তি গ্রাহকদের

ডিসেম্বরে দুদিন ব্যাঙ্ক বন্ধের আশঙ্কা, ভোগান্তি গ্রাহকদের

নিজস্ব প্রতিবেদন : চলতি মাস অর্থাৎ ডিসেম্বর মাসে শনিবার এবং রবিবার বাদে পশ্চিমবঙ্গের ব্যাঙ্ক কর্মীদের ছুটি রয়েছে মাত্র একদিন। কিন্তু ব্যাঙ্ক কর্মীরা এমন এক পদক্ষেপ নিতে চলেছেন যাতে পরপর ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এমনটা হলে স্বাভাবিক ভাবেই চরম ভোগান্তির শিকার হতে হবে গ্রাহকদের তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই।

পরপর ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকার যে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে তা মূলত ব্যাঙ্ক কর্মী ইউনিয়নগুলির হুঁশিয়ারিতে। তারা ডিসেম্বর মাসে পরপর দু’দিন ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের পথে হাঁটতে পারে। মূলত রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলিকে বেসরকারিকরণ করার যে পদক্ষেপ নিচ্ছে কেন্দ্র তারই প্রতিবাদে এই ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি।

নয়টি ব্যাঙ্ক সংগঠনের সম্মিলিত মঞ্চ দ্য ইউনাইটেড ফোরাম অফ ব্যাঙ্ক ইউনিয়নস এই ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি দিয়েছে। তাদের তরফ থেকে আগামী ১৬ এবং ১৭ ডিসেম্বর এই ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। হুঁশিয়ারি অনুযায়ী যদি কর্মীরা ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের পথে হাঁটেন তাহলে চলতি মাসের তৃতীয় সপ্তাহে চরম ভোগান্তির মুখে পড়বেন গ্রাহকরা এমন আশঙ্কা থেকেই যায়।

কারণ ১৬ এবং ১৭ ডিসেম্বর পড়েছে বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার। সত্যিই যদি ধর্মঘট হয়ে থাকে তাহলে এই দু’দিন ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকার পর শনিবার তা খুললে ফের রবিবার ছুটি। এমত অবস্থায় গ্রাহকদের উপর আলাদা চাপ তৈরি হবে, পাশাপাশি চাপ তৈরি হবে ব্যাঙ্ক কর্মীদের উপরও।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বাজেট পেশ করার সময় জানিয়েছিলেন দুটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের বেসরকারিকরণ করা হবে। এরই প্রতিবাদে মূলত ব্যাঙ্ক কর্মীদের সংগঠনের তরফ থেকে এই ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। এই প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো, গত চার বছরে কেন্দ্র সরকার ১৪ টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ককে সংযুক্তিকরণ করেছে। এরপর আবার গোদের ওপর বিষফোঁড়া হয়ে উঠেছে ব্যাঙ্কিং আইন সংশোধনী বিল। এসবের প্রতিবাদেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশেনের সাধারণ সম্পাদক সি এইচ ভেঙ্কটাচালম।

আরো পড়ুন