তরুণীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য এলাকায়, তদন্তে মল্লারপুর থানা পুলিশ

তরুণীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য এলাকায়, তদন্তে মল্লারপুর থানা পুলিশ

মল্লারপুর থানার সন্ধিগড়া বাজার গ্রামে এক তরুণী ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়। বছর ১৮ র ওই তরুনীর নাম প্রিয়া লেট। আজ সকালে গ্রাম থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে একটি গাছের মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। মৃত তরুণীর পরিবারে সুত্রে দাবী, মেয়েকে মেরে ঝুলিয়ে দিয়েছে। আর অভিযোগের তির গ্রামের এক যুবকের বিরুদ্ধে।

স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে সন্ধিগড়া বাজার গ্রাম থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে একটি গাছের মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় এলাকার মানুষ। খবর দেওয়া হয় মল্লারপুর থানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃত দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

https://youtu.be/fhZUA-AH1pA

মৃত তরুনী বাবা জানান, “আমার মেয়ের সাথে গ্রামের এক যুবকের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু বর্তমানে তাদের মধ্যে সর্স্পকের অবনতি হয়। এরপর অন্যত্র আমরা মেয়ের বিয়ে ঠিক করি। সামনে রবিবার মেয়ের বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করা হয়েছিল। তবে গতকাল বিকেলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় মেয়ে। সন্ধ্য হয়ে গেলেও বাড়ি না ফেরায় আমরা খুজতে শুরু করি। তখনই গ্রামের লোকের কাছে জানতে পারি গ্রামের ছেলে পার্থর সাথে মোটর বাইকে চেপে যেতে দেখা গেছে। পরে রাতে অনেক খোঁজাখুঁজির পরও কোনো খোঁজ মেলেনি।

এদিকে আজ সকালে গ্রাম থেকে অনেকটা দূরে একটি গাছের মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। মৃতার পরিবারের সন্দেহ পার্থ নামে গ্রামের ওই যুবকই তরুণীকে মেরে গাছে ঝুলিয়ে দিয়েছে। তবে এনিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনো লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। যদিও পরিবারটি পুলিশকে সমস্ত ঘটনা মৌখিকভাবে জানিয়েছে।

আরো পড়ুন