তারাপীঠে মারধরের ঘটনায় দিল্লির দুই যুবকের জেল হেফাজত

প্রীতম দাস, রামপুরহাট, ১৯ মে ঃ হোটেল মালিককে মারধরের ঘটনায় দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল তারাপীঠ থানার পুলিশ। রবিবার তাদের রামপুরহাট মহকুমার বিশেষ আদালতে তোলা হলে বিচারক অন্নেশা চট্টোপাধ্যায় তাদের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। আগামী ১২ জুন তাদের পুনরায় আদালতে তোলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
প্রসঙ্গত, শনিবার সকালে তারাপীঠের রবীন্দ্রপল্লি এলাকার একটি বেসরকারি হোটেলে উঠেছিলেন পশ্চিম দিল্লির কয়েকটি পরিবার। তারা পাঁচটি রুম নিয়েছিলেন। ঠিক ছিল সন্ধ্যার দিকে হোটেল ছেড়ে দেবেন, কিন্তু বিকেলের দিকেই তারা হোটেল ছেড়ে চলে যেতে শুরু করেন। এদিকে হোটেলের কর্মী রাধাবল্লভ মণ্ডল দেখেন হোটেল ঘরের দুটি এসি রিমোর্ট এবং একটি ঘরের চাবি নেই। চাবি রিমোর্ট চাইতে গেলে আবাসিকরা হোটেল মালিক দীপক কুমার মণ্ডলকে মাটিতে ফেলে বেধড়ক মারধর করে। ইট দিয়ে তারা কপাল ফাটিয়ে দেয়। গণ্ডগোলের চিৎকার শুনে আশেপাশের হোটেলের লোকজন বেরিয়ে এসে দুজনকে ধরে ফেলে। তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ধৃতরা হল বিকাশ বেরু এবং রণধীর সিংহ তন্দির। দুজনেরই বাড়ি পশ্চিম দিল্লি। হোটেল মালিক পক্ষের আইনজীবী অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় বলেন, “ধৃতদের ১১ জুন পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। ১২ জুন তাদের পুনরায় আদালতে হাজিরার নির্দেশ দেন”।

আরো পড়ুন