দিলীপকে বর্ণপরিচয় দিয়ে বাংলা শেখাতে গিয়ে নিজেরই বানান ভুল, খোঁচার মুখে বাবুল

দিলীপকে বর্ণপরিচয় দিয়ে বাংলা শেখাতে গিয়ে নিজেরই বানান ভুল, খোঁচার মুখে বাবুল

নিজস্ব প্রতিবেদন : দু’বারের বিজেপি সাংসদ তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর থেকেই দুই শিবিরের মধ্যে তর্ক বিতর্ক শুরু হয়েছে। এমত অবস্থায় বাবুল সুপ্রিয় দিলীপ ঘোষকে বর্ণপরিচয় উপহার দিয়ে বাংলা শেখানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কারণ বাবুল সুপ্রিয়র দাবি, বাংলাটা ঠিক আয়ত্তে আনতে পারেননি বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তবে দিলীপ ঘোষকে যখন বর্ণপরিচয় উপহার দিয়ে বাবুল সুপ্রিয় বাংলা শেখাতে চলেছেন সেই সময়ই তিনি নিজেই একটি পোস্ট করার সময় বানান ভুল করলেন। এই বানান ভুলের পরিপ্রেক্ষিতে স্বাভাবিকভাবেই খোঁচার মুখে পড়তে হয়েছে বর্তমান এই তৃণমূল নেতাকে। বিজেপি শিবিরের তরফ থেকে তাঁকে খোঁচা দেওয়ার পাশাপাশি নেটিজেনরাও খোঁচা দিতে ছাড়েননি।

ঘটনার সূত্রপাত বিজেপির নতুন রাজ্য সভাপতি বেছে নেওয়াকে কেন্দ্র করে। বিজেপির নতুন রাজ্য সভাপতি ডঃ সুকান্ত মজুমদারকে অভিনন্দন জানাতে গিয়ে বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ একটি টুইট করেন। সেখানে যা লিখেছিলেন, তাতে লেখা ছিল, ‘ভারতীয় নতুন রাজ্যসভাপতি….’। পরে তিনি সেই টুইট ডিলিট করে দেন এবং নতুন করে লেখেন, “ভারতীয় জনতা পার্টির নতুন রাজ্যসভাপতি হিসেবে ডঃ সুকান্ত মজুমদারকে অভিনন্দন জানাই এবং তার সাফল্য কামনা করি।”

সেই টুইটের স্ক্রিনশট তুলে ধরে বাবুল সুপ্রিয় নতুন করে টুইট করে লেখেন, “বিগত কয়েক বছরে @BJP4Bengal -এরজন অনেক খেটেছেন @DilipGhoshBJP | তাই ওনার আগামী জীবন সুখের হোক এই কামনাই করি | কিন্তু on a lighter note এটা বলতেই হচ্ছে যে আমার বর্ণপরিচয়টা কিন্তু ওনার লাগবে | “ভারতীয় নতুন রাজ্য সভাপতি…” মানে কি??? আবার ভুল বাংলা !! যাইহোক ভালো থাকুন দিলীপদা🙏।”

কিন্তু লক্ষণীয় বিষয় বাবুল সুপ্রিয়র এই পোষ্টের প্রথম লাইনে অর্থাৎ প্রথম বাক্যে একটি বানান ভুল রয়েছে। আর যখন বাংলা এবং বানান নিয়ে বাবুল সুপ্রিয় অন্য কাউকে খোঁচা দিচ্ছেন সেই সময় তাঁর এই ভুল কোনভাবেই নজর এড়ায়নি নেটিজেনদের। তারপরেই শুরু হয় বাবুল সুপ্রিয়কে নেটিজেনদের খোঁচা।

আরো পড়ুন