দীঘায় বেড়াতে গিয়ে কাঁকড়া খেয়ে মৃত্যু হল বীরভূমের কিশোরীর

দীঘায় বেড়াতে গিয়ে কাঁকড়া খেয়ে মৃত্যু হল বীরভূমের কিশোরীর

নিজস্ব প্রতিবেদন : ফের কাঁকড়া খেয়ে মৃত্যুর ঘটনা ঘটলো দীঘায়। এবার প্রাণ হারালেন বীরভূমের এক কিশোরী। চলতি বছর দীঘায় ঘুরতে এসে এমনই ঘটনা ঘটেছিল বেহালার এক যুবকের ক্ষেত্রে। কাঁকড়ার তরকারি খেয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছিলেন ২২ বছরের যুবক সৌম্যদীপ শিকদার। সেই ঘটনারই পুনরাবৃত্তি ঘটল।

দীঘায় বেড়াতে গিয়ে কাঁকড়ার তরকারি খেয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়া বীরভূমের ওই কিশোরী হলেন ১৮ বছর বয়সী ঋত্বিকা ভকত। ওই কিশোরী রামপুরহাটের হাটতলা পাড়ার বাসিন্দা। পরিবারের সঙ্গে ওই কিশোরী গত বৃহস্পতিবার পূর্ব মেদিনীপুরের সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে এসেছিলেন। তারপর কাঁকড়া খেয়ে এমন বিপত্তি বাঁধে।

জানা যাচ্ছে, দীঘা ঘুরতে এসে ওই কিশোরী একটি হোটেলে কাঁকড়ার তরকারি খাওয়ার পরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। সমুদ্র সৈকতে দিনভর ঘোরার পর রাতে সামান্য একটু এই তরকারি খান তিনি। এরপরেই শুক্রবার ভোর বেলা নাগাদ তার শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে পরিবারের সদস্যরা তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার বন্দোবস্ত করেন।

তবে ওই কিশোরীর শারীরিক পরিস্থিতি এতটাই অবনতি ঘটে যে হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই রাস্তায় তার মৃত্যু হয়। ওই যুবতীর অ্যালার্জির সমস্যা ছিল বলে জানা যাচ্ছে এবং কাঁকড়া খাওয়ার পরেই এই সমস্যা ঘোরতর রূপ নেয়। অ্যালার্জির কারণেই ওই কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

মৃত ওই কিশোরীর প্রতিবেশীদের থেকে জানা গিয়েছে, ঋত্বিকার আগে থেকেই অ্যালার্জির সমস্যা ছিল। চিকিৎসাও চলছিল। তবে এরই মাঝে সামান্য একটু কাঁকড়া খাওয়ার খেসারত জীবন দিয়েই মেটাতে হলো।

আরো পড়ুন