দুবরাজপুর থানার উদ্যোগে রক্তদান শিবির

দুবরাজপুর থানার উদ্যোগে রক্তদান শিবির

বীরভূম জেলা পুলিশের উদ্যোগে সোমবার দুবরাজপুর থানার অন্তর্গত রবীন্দ্রসদনে রক্তদান শিবির থেকে খুদে পড়ুয়াদের শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এর পাশাপাশি এই অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকেই উদ্ধার হওয়া চুরি যাওয়া বাইক আসল মালিকদের হাতে ফিরিয়ে দেওয়া হল।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে এদিন পঞ্চাশের কাছাকাছি দুবরাজপুর থানার অফিসার ও অন্যান্য কর্মীরা রক্ত দান করেছেন। এর পাশাপাশি দুঃস্থ পড়ুয়াদের ব্যাগ খাতা কলম ইত্যাদি উপহার দেওয়া হয়। অন্যদিকে দুবরাজপুর থানা এলাকায় গত কয়েকদিন আগে পুলিশি অভিযানে যেসকল চুরি যাওয়া মোটরবাইক উদ্ধার হয়েছিল সেগুলি আসল মালিকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

বীরভূম জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্র নাথ ত্রিপাঠী জানিয়েছেন, বর্তমান করোনাকালে অনেকেই হাসপাতালে গিয়ে রক্তদান করতে ভয় পাচ্ছেন। সেইমতো আমরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে বীরভূমের বিভিন্ন এলাকায় রক্তদান শিবির করছি। এই সকল রক্তদান শিবিরগুলিতে স্বতঃস্ফূর্ততা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। পাশাপাশি এদিন আমরা দুঃস্থ পড়ুয়াদের হাতে ব্যাগ বই-খাতা তুলে দিলাম।
অন্যদিকে আপনারা জানেন গত কয়েকদিন আগে অভিযান চালিয়ে বীরভূম পুলিশ 36টির কাছাকাছি চুরি যাওয়া মোটরবাইক উদ্ধার করেছিল। সেগুলির মধ্যে 16টি মত মোটর বাইক ফিরিয়ে দেওয়া হলো আসল মালিকদের হাতে।

প্রসঙ্গত, মাসখানেক আগেই দুবরাজপুর থানার পুলিশ এবং বীরভূম পুলিশ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে বীরভূমের একাধিক এলাকা থেকে 36 টি চুরি যাওয়া মোটরবাইক উদ্ধার করে। যে ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। আর এবার সেই সকল মোটরবাইক আসল মালিকদের হাতে ফিরিয়ে দেওয়া হল। আসল মালিকরা তাদের মোটরবাইক ফিরে পেয়ে খুশি।
এদিন অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অ্যাডিশনাল এসপি বোলপুর, ডিএসপি ক্রাইম, দুবরাজপুরের সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক অনিরুদ্ধ রায়, বীরভূমের পাবলিক প্রসিকিউটর মলয় মুখোপাধ্যায়, দুবরাজপুর রামকৃষ্ণ আশ্রমের শীর্ষ সেবক স্বামী সত্যশিবানন্দ মহারাজ, দুবরাজপুর পৌরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য মির্জা সৌকত আলী সহ আরোও অনেকে।

আরো পড়ুন