বোমা মেরে তৃণমূল উপপ্রধানকে খুন, চাঞ্চল্য বীরভূমে

বোমা মেরে তৃণমূল উপপ্রধানকে খুন, চাঞ্চল্য বীরভূমে

নিজস্ব প্রতিবেদন : ফের তৃণমূল নেতাকে খুন হতে হলো রাজ্যে। এবার খুন হলেন তৃণমূলের উপপ্রধান। বোমা মেরে তৃণমূল উপপ্রধানকে খুনের ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের রামপুরহাট থানা এলাকায়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মৃত উপ-প্রধানের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য আনা হয়েছে রামপুরহাট গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে।

তৃণমূল উপপ্রধানকে এইভাবে বোমা মেরে খুনের ঘটনাটি ঘটে সোমবার রাত্রিবেলায়। মৃত ওই তৃণমূল উপপ্রধানের নাম ভাদু সেখ। তিনি রামপুরহাট এক নম্বর ব্লকের অন্তর্গত বরশাল গ্রামের উপপ্রধান ছিলেন। তার বাড়ি রামপুরহাট থানার অন্তর্গত বগটুই গ্রামে। এদিন তার গ্রামের কাছে ১৪ নং জাতীয় সড়কের ধারে সঙ্গী সাথীদের সঙ্গে আড্ডা মারার সময় তাকে লক্ষ্য করে দুষ্কৃতীরা বোমা ছোড়ে। ঘটনার সঙ্গে সঙ্গেই বোমার আঘাতে তার মৃত্যু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী লালন শেখ জানিয়েছেন, “আমার থেকে হাত ধরছে দূরে দাঁড়িয়ে ছিল ভাদু। সেই সময় হঠাৎ দেখি দুষ্কৃতীরা মোটর বাইক চালিয়ে আসছে এবং ওকে লক্ষ্য করে একটি বোমা ছোড়ে। এরপর আমাদের লক্ষ্য করে বোমা ছুঁড়তে শুরু করে। আমরা পালিয়ে যাই এবং ঘুরে এসে দেখতে পায় ভাদু আর নেই। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে তার।”

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের রামপুরহাট এক নম্বর তৃণমূল ব্লক সভাপতি আনারুল হোসেন জানিয়েছেন, “ঘটনার কথা জানতে পেরে আমি হাসপাতালে এসেছি। শুনলাম ভাদু শেখকে বোমার আঘাতে মেরে ফেলা হয়েছে। পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে কথা হয়েছে এলাকায় শান্তি বজায় রাখা এবং দোষীদের খুঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার বিষয়ে।”

এদিন তৃণমূলের এই উপপ্রধানকে খুন করার জন্য চার পাঁচটি বোমা ছোড়া হয় এবং ফায়ারিং করা হয় বলে দাবি করা হয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীদের তরফ থেকে। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এই প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো, আট মাস আগে ভাদু শেখের মেজ ভাই একইভাবে খুন হয়েছিলেন। তাকে গুলি করে খুন করা হয়েছিল। আরে বাড়ে একইভাবে দুষ্কৃতীদের হাতে খুন হতে হলো ভাদু শেখকে।

আরো পড়ুন