‘নন্দীগ্রামে গোলকিপারকে মাঠে নামতেই দিই নি’, শুভেন্দু অধিকারী

‘নন্দীগ্রামে গোলকিপারকে মাঠে নামতেই দিই নি’, শুভেন্দু অধিকারী

নিজস্ব প্রতিবেদন : তৃণমূল সরকারের একসময়ের মন্ত্রী বর্তমানে বিজেপি অন্যতম মুখ শুভেন্দু অধিকারী রবিবার নির্বাচনী প্রচারে আসেন বীরভূমের রামপুরহাটে। যেখানে বক্তব্য রাখার সময় প্রথম থেকেই তিনি ক্ষুরধার আক্রমণ করেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

শুভেন্দু বলেন, “সেই জন্য আপনার মুখ থেকে মন্ত্রতন্ত্র ভুল বেরোচ্ছে। আপনি ভগবান নারায়ণকে বিষ্ণুমাতা বলছেন। সন্তোষী মাতাকে বলছেন সন্তোষী পিতা। আপনি সরস্বতী পূজোর মন্ত্র ভুল বলছেন। চণ্ডীপাঠ ভুল করছেন, সভাতে সভাতে গিয়ে কলমা পাঠ করছেন। এই মুখ্যমন্ত্রীকে বিদায় দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের সনাতনী সংস্কৃতিকে রক্ষা করার দায়িত্ব গণদেবতা ভোটার মন্ডলীতে নিতে হবে।”

এর পরেই নন্দীগ্রামের প্রসঙ্গ টেনে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “আমি নন্দীগ্রামে গোলকিপারকে মাঠে নামতে দিই নি। গোলকিপার মাঠে নেমেছে দুপুর দুটোর সময়। তখন তো ভোট শেষ হয়ে গেছে।”

এর পাশাপাশি এদিন তিনি পুলিশকেও একহাত নেন। বলেন, “কমিশন নির্দেশ দিয়েছে ৫০০ চেয়ার পাততে কিন্তু এখানকার পুলিশ আরও একটু বেড়ে গিয়ে ৩০০ চেয়ার পাততে দিয়েছে। এরা ভাবছে এখানকার একজন ছোট মুখ্যমন্ত্রী আছে মোটা, সেই মোটাকে এইসব করে যদি সন্তুষ্ট রাখা যায়। আরে সেই মোটাই তো ইনকাম ট্যাক্সের চিঠি পেয়ে গেছে। আয়কর দপ্তর বলছে তোমার চাল কল কত, মিল কল কত, কত মাল করেছো ১০ বছরে তার হিসাব দিতে হবে। ছোটাছুটি আরম্ভ হবে, ভয় পাওয়ার দরকার নেই।”

আরো পড়ুন