পাঁচটি জ্যোতির্লিঙ্গসহ ৮টি তীর্থক্ষেত্র ভ্রমণের ব্যবস্থা করছে রেল মন্ত্রক! থাকছে ইএমআইয়ের সুবিধা, কবে ছাড়ছে এই ট্রেন?

পাঁচটি জ্যোতির্লিঙ্গসহ ৮টি তীর্থক্ষেত্র ভ্রমণের ব্যবস্থা করছে রেল মন্ত্রক! থাকছে ইএমআইয়ের সুবিধা, কবে ছাড়ছে এই ট্রেন?

প্রীতম দাস রামপুরহাট :-

ইএমআই সুবিধায় ৫ টি তীর্থক্ষেত্র ভ্রমণের জন্য ‘ভারত গৌরব স্পেশাল টুরিস্ট ট্রেন’ ছাড়ছে রেল মন্ত্রক।  ২০মে কলকাতা থেকে এই ট্রেনের যাত্রা শুরু হবে। জ্যোতির্লিঙ্গ -ওমকারেশ্বর- মহাকালেশ্বর-সোমনাথ-নাগেশ্বর-এম‌্বকেশ্বর সহ স্ট্যাচু অফ ইউনিটি, শিরডি সাই বাবা ও শনি মন্দির ঘোরানো হবে পর্যটকদের। ১১ রাত ১২ দিন ধরে চলবে এই বিশেষ এই ভ্রমণ ট্রেনটি। এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে জানালো ইণ্ডিয়ান রেলওয়ে ক্যাটারিং এণ্ড টুরিজম কর্পোরেশন (IRCTC)।

২৩ মে কলকাতা থেকে ছাড়ছে ‘ভারত গৌরব স্পেশাল টুরিস্ট ট্রেন’। এই বিশেষ ট্রেনটি ৫ টি জ্যোতির্লিঙ্গ ওমকারেশ্বর, মহাকালেশ্বর, সোমনাথ, নাগেশ্বর, শিরডি সাই বাবা, শনি শিংনাপুর সহ স্ট্যাচু অফ ইউনিটি ঘুরে দেখানো হবে পর্যটকদের৷ ১১ রাত ১২ দিন ধরে ভ্রমণ ট্রেনটি চলবে। কলকাতা ছাড়া ব্যাণ্ডেল জংশন, বর্ধমান জংশন, বোলপুর-শান্তিনিকেতন, রামপুরহাট জংশন, পাকুড়, সাহেবগঞ্জ, ভাগলপুর, মুজাফফরপুর, পাটলিপুত্র প্রভৃতি স্টেশনে দাঁড়াবে ট্রেনটি। এই স্টেশনগুলি থেকে বুকিংও করা যাবে।পর্যটকদের জন্য তিনটি বিশেষ প্যাকেজ রাখা হয়েছে। বাতানুকূল সহ মোট ৬৫৬ টি আসন রয়েছে। সুবিধাযুক্ত আসন অনুযায়ী মাথাপিছু খরচ ২০ হাজার ৬০ টাকা, ৩১ হাজার ৮০০ টাকা ও ৪১ হাজার ৬০০ টাকা। রেল পর্যটনের প্রচারের জন্য রেলমন্ত্রক ৩৩ শতাংশ ছাড়ও দিচ্ছে। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, এই প্রথম পর্যটনের জন্য ইএমআই সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। অর্থাৎ, ৩ থেকে ১৮ মাসের ইএমআই সুবিধায় ভ্রমণ করতে পারবেন পর্যটকেরা৷ যে কেউ ইণ্ডিয়ান রেলওয়ে ক্যাটারিং এণ্ড টুরিজম কর্পোরেশনের ওয়েবসাইট www.irctctourism.com -এর মাধ্যমে বুকিং করতে পারবেন। এদিন, রামপুরহাট স্টেশনে সাংবাদিক বৈঠক করেন আইআরসিটিসির চিফ সুপার ভাইজার সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, “ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য এই বিশেষ ট্রেন চালু করা হচ্ছে। এর আগেও আমরা এই ধরনের বিশেষ ট্রেন ছেড়ে সাফল্য পেয়েছি। মাথাপিছু ধার্য টাকার বাইরে কোন টাকা লাগবে না ।এছাড়া পর্যটকদের সুবিধার জন্য এই প্রথম ইএমআই ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। জিনিসপত্র যেমন ইএমআই এর মাধ্যমে কেনা হয় তেমনই ভ্রমণের জন্য এই পদ্ধতিতে টাকা দিতে পারবেন পর্যটকেরা।”

আরো পড়ুন