পুরীর আদলে জগন্নাথ মন্দিরের কাজ শুরু দীঘায়, কবে খুলবে, জানালেন মন্ত্রী

পুরীর আদলে জগন্নাথ মন্দিরের কাজ শুরু দীঘায়, কবে খুলবে, জানালেন মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন : পুরীর আদলে একটি জগন্নাথ মন্দির তৈরি করা হবে তা আগেই ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই এই মন্দির নির্মাণের জন্য ২০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। আগামী দিনে আরও আনুষাঙ্গিক কাজের জন্য টাকা বরাদ্দ করা হবে।

পুরীর আদলে দীঘায় জগন্নাথ দেব মন্দির তৈরি করা হবে তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন ২০১৯ সালে। সেই সময় তিনি দীঘা সফরে গিয়ে এমনটাই ঘোষণা করেন। ওল্ড দিঘার জগন্নাথ ঘাটে এই মন্দির তৈরি করা হবে বলে জানিয়েছিলেন তিনি। হিডকো সংস্থাকে দিয়ে এই কাজ করাবেন বলেও জানিয়েছিলেন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণা মতো মঙ্গলবার অক্ষয় তৃতীয়ার দিন থেকে এই মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু হয়ে গেল। প্রথম পর্যায়ের কাজ শুরু হলো ওল্ড দিঘার জগন্নাথের ঘাটের কাছে। সৈকত শহরে ২০ একর জায়গা জুড়ে প্রাচীর নির্মাণের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। এবার শুরু হলো মন্দির নির্মাণের কাজ। এই মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করার জন্য মঙ্গলবার পুজো পাঠের আয়োজন করা হয়।

এই জগন্নাথ দেব মন্দির তৈরি হচ্ছে নিউ দিঘা স্টেশন লাগোয়া ভগীব্রহ্মপুর মৌজার বিস্তীর্ণ উঁচু বালিয়াড়ির ওপর। উচ্চতা থেকে অন্যান্য ডিজাইন সবকিছুই হবে পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের সমান। গত ফেব্রুয়ারি মাসে মন্দিরের নকশা চূড়ান্ত হয়েছে। প্রথম দিকে এই মন্দির নির্মাণের জন্য ১২৮ কোটি বরাদ্দ করা হলেও তা পরবর্তীকালে বেড়ে ২০০ কোটি টাকা করা হয়।

এই মন্দির নির্মাণের দায়িত্বে থাকা হিডকো সংস্থার তরফ থেকে জানা যাচ্ছে, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর সমস্ত কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী সপ্তাহ থেকেই কাজ শুরু হয়ে যাবে। প্রস্তাবিত এই মন্দির তৈরি করার জন্য ১৮ মাস সময় ধার্য করা হয়েছে। সেইমতো শুরু হয়েছে কাজে তৎপরতা। পাশাপাশি মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরি জানাচ্ছেন, ২০২৩ সালের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসে সাধারণের জন্য খুলে যাবে জগন্নাথ মন্দির।

আরো পড়ুন