পুলিশের মানবিক মুখ, ভাদুলিয়া গ্রামের মাতৃহারা ২টি শিশুর ৫ বছর পর্যন্ত দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন লোকপুর থানার ওসি

পুলিশের মানবিক মুখ, ভাদুলিয়া গ্রামের মাতৃহারা ২টি শিশুর ৫ বছর পর্যন্ত দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন লোকপুর থানার ওসি

সেখ রিয়াজুদ্দিন বীরভূম:- বীরভূম জেলার খয়রাশোল ব্লকের লোকপুর থানার অন্তর্গত ভাদুলিয়া গ্রামের হতদরিদ্র দিনমজুর ফেরদৌস খানের সাথে বারাবন গ্রামের রিনা বিবির বিয়ে হয়। তাদের দুটি সন্তানও রয়েছে । দ্বিতীয় সন্তান জন্ম দেওয়ার তিন সপ্তাহের মধ্যেই মারা যান রিনা বিবি (২১) । তার প্রথম সন্তানটির বয়স সাড়ে তিন বছর ও দ্বিতীয়টির বয়স প্রায় এক মাস। এদিকে ফিরদৌস খানের পরিবারে মোট সাত জন সদস্য। এরমধ্যে ফেরদৌস খানের দাদা ও বিধবা বোন দুজনেই প্রতিবন্ধী। রয়েছেন বয়স্ক ফেরদৌস খানের মা যালেখা বিবি। ফেরদৌস খানের স্ত্রী মারা যাওয়ায় চরম সমস্যার মধ্যে পড়ে যায় এই পরিবারটি । দিন আনা দিন খাওয়া পরিবারটি মাতৃহারা শিশু দুটিকে নিয়ে দিন চালানোই সমস্যা হয়ে পড়ে ফেরদৌস খানের। বিষয়টি জানতে পারেন লোকপুর থানার ওসি সন্তোষ ভকত। মানবদরদী মানুষ হিসেবে পরিচিত লোকপুর থানার ওসি সন্তোষ ভকতকে নিজেদের দুর্দশার কথা জানান যালেখা বিবি, ওসি সবকিছু শুনে ওই দুটি শিশুর পাঁচ বছর পর্যন্ত সমস্ত দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। গতকাল রাত্রিতে লোকপুর থানার এএসআই রামপ্রসাদ মন্ডল অন্যান্য পুলিশ ও সিভিক ভলেন্টিয়ার দের মাধ্যমে ফেরদৌস খানের বাড়িতে চাল ডাল মুশুরি তেল বাচ্চাদের কাপড় মশারি সহ শিশুটির জন্য দুগ্ধজাত দ্রব্য পাঠিয়ে দেন।পুলিশের এই মানবিক মুখ দেখে লোকপুর থানার ওসি সন্তোষ ভকতকে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় রাব্বান খাঁ, মুস্তাক খাঁ, সৈয়দ আব্দুল আজিম সহ এলাকাবাসী ।

আরো পড়ুন