পূর্ব বর্ধমানের তৃণমূল নেতা খুনে দোষীদের গ্রেপ্তারের সময়সীমা বেঁধে দিলেন অনুব্রত মণ্ডল

পূর্ব বর্ধমানের তৃণমূল নেতা খুনে দোষীদের গ্রেপ্তারের সময়সীমা বেঁধে দিলেন অনুব্রত মণ্ডল

নিজস্ব প্রতিবেদন : সোমবার ভোর সন্ধ্যায় পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটের মঙ্গলকোটের লাখুড়িয়ার তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি অসীম দাসকে প্রকাশ্য রাস্তায় গুলি করে খুন করা হয়। খুনের এই ঘটনার পর থেকেই অভিযোগের আঙুল উঠছে বিজেপির দিকে। আর এবার এই ঘটনায় দোষীদের গ্রেপ্তারের জন্য বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল সময়সীমা বেঁধে দিলেন।

মঙ্গলবার নিজের বাড়িতে সাংবাদিক বৈঠক করে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, আগামীকাল তিনি ওই মৃত তৃণমূল নেতার বাড়ি যাবেন। দলগতভাবে যা করার তা করা হবে। এই ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছেন চার থেকে পাঁচজন বিজেপি কর্মী, এমনটাও আভাস দেন অনুব্রত মণ্ডল। এর পাশাপাশি তিনি বলেন, বিজেপি বারংবার তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব দাবি করলেও কোথাও কোনো রকম গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নাই।

অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “ছেলেটি খুব ভালো ছেলে ছিল। কোনদিন গ্রামের কারোর সাথে ঝগরা নাই। ভোটের সময় বিজেপি-র যে নোংরামী করেছিল, তার মধ্যে পুলিশ পাঁচজনকে অ্যারেস্ট করেছিল। তারা দিন চারেক হল ছাড়া পেয়েছে। এবারে অসীম দাসকে ওরা মার্ডার করেছে। বিজেপি মার্ডার করেছে।”

আর এর সাথে সাথেই অনুব্রত মণ্ডল তার স্বভাব সিদ্ধ ভঙ্গিতে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, “বিজেপি যদি ভাবে খুনের রাজনীতি করবো তাহলে মূর্খের স্বর্গে বাস করছে।” এই ঘটনায় দোষীদের গ্রেপ্তারের পরিপ্রেক্ষিতে অনুব্রত মণ্ডলের সাথে এসপির কথা হয়েছে বলেও তিনি দাবি করেন। এসপি তাকে বলেছেন দুদিনের মধ্যে সকলকে অ্যারেস্ট করবেন। পাশাপাশি অনুব্রত মণ্ডল জানিয়ে দেন,”২৪ ঘণ্টার মধ্যে অ্যারেস্ট করতে হবে আর তা না হলে দল যা করার তা করবে।”

আরো পড়ুন