ফের উধাও হবে শীত, এই দিন থেকেই আবার বৃষ্টি

ফের উধাও হবে শীত, এই দিন থেকেই আবার বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিবেদন : চলতি মরসুমে শীত যেভাবে খামখেয়ালিপনা দেখাচ্ছে তা বোধ হয় এর আগে কখনো দেখায়নি। বারংবার পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে এমন খামখেয়ালিপনা শুরু হয়েছে। গত সপ্তাহে টানা কয়েকদিন ধরে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে আকাশ মেঘলা থাকার পাশাপাশি বৃষ্টির পর রবিবার থেকে আকাশ পরিষ্কার হয়।

রবিবার আকাশ পরিষ্কার হতেই দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা তরতরিয়ে নামতে শুরু করে। বিশেষ করে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলির তাপমাত্রা অনেকটাই কমে। বীরভূমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা গত সোমবার থেকে ১০ ডিগ্রির নিচে রয়েছে। এছাড়াও কলকাতা এবং তার পার্শ্ববর্তী এলাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রয়েছে ১২ ডিগ্রির আশেপাশে। দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতেও জাঁকিয়ে শীত অনুভূত হলেও এর পরমায়ু কত দিন? হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস এই প্রশ্নই উঠছে।

মঙ্গলবার আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফ থেকে আবহাওয়া সংক্রান্ত যে রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, এদিন দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় ১° কম। গত ২৪ ঘন্টায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২২.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের তুলনায় ৩° কম।

শ্রীনিকেতন হাওয়া অফিসের রিপোর্ট অনুযায়ী মঙ্গলবার দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৯.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের তুলনায় ২° কম। গত ২৪ ঘন্টায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২২.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের তুলনায় ২° কম।

হাওয়া অফিসের তরফ থেকে আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেওয়ার পাশাপাশি জানানো হয়েছে, শীতের এই অনুভূতি লক্ষ্য করা যাবে বড়জোর বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। শুক্রবার থেকেই বাড়তে শুরু করবে তাপমাত্রা এবং শনিবার দক্ষিণবঙ্গের অধিকাংশ জেলায় বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। যে সকল জেলায় বৃষ্টি লক্ষ্য করা যাবে না সেই সকল জেলা মূলত মেঘলা আকাশে ঢাকা থাকবে। এই কারণেই ফের তাপমাত্রার পারদ বৃদ্ধি পাবে।

আরো পড়ুন