ফের দু’বছর পর রথে নগর পরিক্রমা করবে মা তারা, চলছে প্রস্তুতি

ফের দু’বছর পর রথে নগর পরিক্রমা করবে মা তারা, চলছে প্রস্তুতি

প্রীতম দাস :-

প্রতিবছরই মহা ধুমধামের সঙ্গে তারাপীঠে রথযাত্রা পালন করা হয়। তবে করোনা সংক্রমণের কারণে গত দু’বছর তারাপীঠের রথ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তারাপীঠ মন্দির কমিটি। দু’বছর পর এবার ফের মহা ধুমধামের সঙ্গে রথযাত্রা পালন করা হবে তারাপীঠে। এনিয়ে খুশি স্থানীয় ব্যবসায়ী থেকে হোটেল ব্যবসায়ী সকলেও।

তারাপীঠের রথযাত্রা অন্যান্য জায়গার থেকে আলাদা, রথযাত্রাতে অন্যান্য জায়গায় যেমন জগন্নাথ দেব, বলরাম দেব ও দেবী সুভদ্রা থাকেন, কিন্তু তারাপীঠে এঁরা কেউ থাকেন না। এখানে মা তারাকে পিতলের রথে বসিয়ে গোটা তারাপীঠ পরিক্রমা করা হয়। রথে তারাপীঠের মা তারার রথযাত্রা বহুকালের প্রথা।

আরও জানা যাই, ঘড়ির কাঁটা দুপুর তিনটে ছুঁতেই চিঁড়ে, পাঁচ রকম মিষ্টি, ফল দিয়ে ভোগ নিবেদনের পরে বিশেষ পুজো। রথ উপলক্ষে দেবীকে জিলিপির ভোগও নিবেদন করা হয়। রথ বের করানোর আগে বেনারসি কাপড় পরানো হয়। প্রাচীন প্রথা মেনে মা তারাকে অপরাজিতা, জবা, রজনীগন্ধা ফুলের বড় বড় মালা দিয়ে সাজানো হয়। তারপরে মন্দিরের গর্ভগৃহ থেকে মাকে বের করে মন্দিরের মূল প্রবেশ দ্বারের নীচে দাঁড়িয়ে থাকা সুসজ্জিত রথে চাপানো হয়। শুরু হয় যাত্রা।

প্রথমে প্রথা মেনে মা তারাকে মূল প্রবেশ দ্বার থেকে উত্তরমুখে নিয়ে যাওয়া হয়। উত্তর মুখে রথে চেপে দ্বারকা সেতু সংলগ্ন রামপুরহাট-সাঁইথিয়া রাস্তা ধরে রথ তারাপীঠের তিন মাথা মোড় হয়ে এগিয়ে যায়। এবং মা তারাকে রথে চাপিয়ে আবারও মন্দিরের মূল প্রবেশ দ্বারেই নিয়ে আসা হয়। সোজা রথ এবং উল্টো রথের দিন লক্ষ লক্ষ মানুষের ভিড় হয় এই তারাপীঠে। করোনার কারণে দুই বছর রথযাত্রা বন্ধ ছিল।

রথ বন্ধ রাখার পর এবার আবারও রথ নগর পরিক্রমা করবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারাপীঠ মন্দির কমিটি।  তারাপীঠ মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় জানান, সমস্ত রকম প্রস্তুতি চলছে। গত বছর গুলিতে রথ পরিক্রমা করেনি, তাই রথের চাকা থেকে রথের রশ্মি সবই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিপুল ভক্তসমাগম এর আশঙ্কা করে আগাম প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনও।

তারাপীঠের রথযাত্রা নিয়ে এক হোটেল ব্যবসায়ী জানান, ইত্যিমধ্যেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে বুকিং শুরু হয়ে গেছে। গত দু’বছর ব্যবসায় ক্ষতির সম্মুখীন হলেও এবছর ব্যবসা ভালো হবে আশাবাদী ব্যবসায়ীরা।

আরো পড়ুন