ফের পুলিশের মানবিকতার নজির রামপুরহাটে।

ফের পুলিশের মানবিকতার নজির রামপুরহাটে

গত লকডাউনের দিনগুলিতে মানবিকতার নজির গড়েছে বীরভূম জেলা পুলিশ। জেলার বিভিন্ন প্রান্তে কখনও গান গেয়ে মানুষকে ঘরের থাকার গুরুত্ব বুঝিয়ে, কখনও আবার আর্তের সেবা করে। গ্রীষ্মে চরম রক্তসংকট মেটাতে প্রতিদিন সোশ্যাল ডিসটেন্সিং মেনে রক্তদান করছেন জেলা পুলিশের করোনা যোদ্ধারা। কেউ সোশ্যাল মিডিয়াতে সাহায্যের আবেদন করলে হাতও বাড়িয়ে দিয়েছে পুলিশ। তেমনই এক নজির হল শুক্রবার। স্থানীয়দের আবেদনে ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন রামপুরহাট থানার পুলিশ। মুশকিল আসান করল পুলিশ।

তবে ঘটনাক্রম কি?

ঘটনাক্রম বলছে, স্থানীয় সুত্রে খবর পেয়ে বড়শাল গ্রাম পঞ্চায়েতের সাকিরপুর আদিবাসী পাড়ায় পৌঁছায় রামপুরহাট থানা পুলিশ। সেখানে এক আদিবাসী মহিলার অসহায়তার চিত্র চোখে পড়ে। জানা যায়, ওই আদিবাসী মহিলার দুটো চোখই অন্ধ। অন্যদিকে পরিবার তেমন কেই নেই। বেশ কিছু দিন ধরে অনাহারেই দিন কাটছিল তার। রামপুরহাট থানাতে এই খবর আসা মাত্রই চাল,ডাল সহ কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য ও পোশাক পৌঁছে দেয় পুলিশ। পাশাপাশি কিছু নগদ টাকাও তুলে দেওয়া হয় তার হাতে।সামাজিক দায়িত্ব পালনে এগিয়ে রয়েছে রামপুরহাট থানার পুলিশ। কখনও বিনামূল্যে চক্ষু পরীক্ষা শিবির, আবার কখনও রক্তদান শিবির, তবে এর পাশাপাশি অপরাধমূলক কাজ দমন করে সামাজিক সুরক্ষা ঠিক রাখতেও এগিয়ে রামপুরহাট থানার পুলিশ।

আরো পড়ুন