বকেয়া বেতন বন্ধ, অপরদিকে ৩ ছাত্র-ছাত্রীদের ফের সাসপেন্ডের দিন বাড়লো বিশ্বভারতীর কতৃপক্ষ

বকেয়া বেতন বন্ধ, অপরদিকে ৩ ছাত্র-ছাত্রীদের ফের সাসপেন্ডের দিন বাড়লো বিশ্বভারতীর কতৃপক্ষ

 

বোলপুর- ১৩ জুলাই : ফের বিশ্বভারতীর উপাচার্য তরফে। বিশ্বভারতীর পাঠরত ৩ ছাত্র-ছাত্রীদের ৩ মাসের জন্য আবার সাসপেণ্ডের মেয়াদ বাড়নো হলো।
ফাল্গুনী পান অর্থনীতি ও রাজনীতি বিভাগের বিদ্যভবনের ছাত্র ।সোমনাথ সৌ অর্থনীতি ও রাজনীতি বিভাগ বিদ্যভবন ।
রুপা চক্রবর্তী হিন্দুস্তানী শাস্ত্রীয় সঙ্গীত বিভাগ সঙ্গীত ভবন।
এই তিন ছাত্র কে উপাচার্য প্রথমে ইংরেজি ২০২১ এর ১৪ জানুয়ারী সাসপেণ্ড করে ৩ মাসের জন্য। ১৯ মার্চ তারিখ স্থগিতদেশ ছিল। এরপর আবার ১৪ জুলাই থেকে আবরও ৩ মাসের মেয়াদ বাড়ালো অর্থাৎ ওক্টম্বর পর্যন্ত।

ছাত্র ছাত্রীদের তরফে সাসপেণ্ডডেন্ট ছাত্র সোমনাথ সৌ জানান। উপাচার্য বিশ্বভারতীরতে অগণতান্ত্রিক পরিস্থিতি করছে। তার স্বৈরাচার ও একনায়ক তন্ত্র বিরোধীতা রুক্ষে দাঁড়ানো প্রতিবাদ করাতে এই পদক্ষেপ বলে মনে করি ।
ভারতের কোনো ক্যাম্পাস এ এমন আচরণ নেই। এভাবে দীর্ঘদিন প্রায় টানা ১ বছরের কাছা কাছি সাসপেণ্ড করা হচ্ছে। ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যত নিয়ে ছিন্ন বিন্নি খেলছে। আমাদের ভবিষ্যত শেষ করে দিয়ে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। আমাদের মধ্যে কেউ যদি কোনো ভয়ঙ্কর পদক্ষেপ নেই তাহলে তার সম্পূর্ণ দ্বায়ভার বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর।
আত্মঘাতী মতো ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে তার জন্য দায়ী উপাচার্য থাকবে।
অপরদিক বিশ্বভারতীর জনসংযোগ আধিকারিক ও পোক্টর ফোন করা হলেও কোনো উত্তর মেলেনি। ছাত্র-ছাত্রীদের সাসপেণ্ড মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে ।
তবে ক্ষুব্ধ বিশ্বভারতীর একাংশ আধ্যপক ও ভিবিউফাআ সংগঠন সকল সদস্যরা।
ভিবিউফাআ সংগঠন জানান যে উপাচার্য স্বৈরাচার প্রতিবাদ ছাত্র ছাত্রীদের সমর্থন থাকে বলে ছাত্র-ছাত্রীদের উপর অগণতান্ত্রিক পদক্ষেপ গ্রহণ করছে উপাচার্য ও কর্তৃপক্ষ।

 

আরো পড়ুন