বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের জেরে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা, এই দিন থেকে বদলে যাবে আবহাওয়া

বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের জেরে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা, এই দিন থেকে বদলে যাবে আবহাওয়া

নিজস্ব প্রতিবেদন : চলতি বছর একের পর এক ঘূর্ণিঝড়, নিম্নচাপের সম্মুখীন হতে হয়েছে পশ্চিমবঙ্গকে। এই সকল ঘূর্ণিঝড় ও নিম্নচাপের কারণে বৃষ্টিও হয়েছে তুলনামূলক অনেকটাই বেশি। তবে যখন শীতের মরশুম শুরু হয়েছে, সেই সময়ও এই ঘূর্ণিঝড় এবং নিম্নচাপ পিছু ছাড়ছে না।

এই সকল একাধিক নিম্নচাপ এখন শীতের পথে কাঁটা, এরপর আবার গোদের ওপর বিষফোঁড়া হয়ে হাজির ঝড়-বৃষ্টি। বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া একটি নিম্নচাপের কারণে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এই ঘূর্ণিঝড়ের কারণে রাজ্যের অধিকাংশ জেলার আবহাওয়ার পরিবর্তন ঘটবে খুব তাড়াতাড়ি।

মঙ্গলবার হাওয়া অফিসের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বঙ্গোপসাগর এবং দক্ষিণ আন্দামান সাগরের উপর ঘনীভূত হচ্ছে নিম্নচাপ। এই নিম্নচাপের প্রভাবে উড়িষ্যা ও অন্ধ্র উপকূলে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে পশ্চিমবঙ্গের দুই ২৪ পরগনা এবং মেদিনীপুরে। সপ্তাহ শেষে আবহাওয়ার পরিবর্তনের পাশাপাশি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের অধিকাংশ জেলায়।

গত কয়েকদিন ধরেই রাতের ডিগ্রি তাপমাত্রার পারদ নামলেও দিনের বেলা বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শীতের আমেজ উধাও হয়ে যাচ্ছে। বেলা বাড়লেই বাড়ছে গরম। এই একই রকম আবহাওয়া এখনো দিন কয়েক চলবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। তবে দিনের দিকে তাপমাত্রা বাড়লে দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দিন কয়েক ধরে অনেকটাই কমেছে পশ্চিমের জেলাগুলিতে। পশ্চিমের জেলাগুলিতে দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা পৌঁছেছে ১৫ ডিগ্রির কাছাকাছি।

হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, আগামীকাল অর্থাৎ বুধবার পর্যন্ত দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কম থাকলেও বৃহস্পতিবার থেকেই এই তাপমাত্রার পারদ ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করবে। শনিবার রাজ্যের অধিকাংশ জেলাতেই রয়েছে বৃষ্টির পূর্বাভাস।

আরো পড়ুন