বহির্ভূত সম্পত্তির অভিযোগে গ্রেফতার রাজ্য পুলিশের এক কনস্টেবল

হিসাব-বহির্ভূত আয়ের দায়ে কনস্টেবলকে গ্রেফতার করল পুলিশ

 

 

আয় বহির্ভূত সম্পত্তির অভিযোগে রাজ্য পুলিশের এক কনস্টেবলকে গ্রেফতার করল রাজ্য সরকারের দুর্নীতি দমন শাখা। ধৃত কনস্টেবলের নাম মনোজিৎ বাগিস। তিনি বীরভূমের রামপুরহাট থানায় কনস্টেবল পদে কর্মরত ছিলেন। শুক্রবার রাতে কলকাতা থেকে দুর্নীতি দমন শাখার আধিকারিকেরা আসেন। রাতেই তাকে কলকাতায় নিয়ে যাওয়া হয়। শনিবার মনোজিৎকে গ্রেফতার করা হয়েছে। খোদ কনস্টেবলের গ্রেফতারির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

পুলিশের একটি সূত্রে খবর, আগে হাওড়া গ্রামীণ এলাকায় কর্মরত ছিলেন অভিযুক্ত ওই কনস্টেবল। তার আগে ছিলেন হাওড়া সিটি পুলিশ এবং রাজ্য এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চে। ২০১২ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ওই কনস্টেবলের মোট আয় হওয়ার কথা ১০ লক্ষ ২৩ হাজার টাকা। কিন্তু তাঁর বিপুল সম্পত্তির খবর যায় গোয়েন্দাদের কানে! কিন্তু কীভাবে করলেন এই বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি ? তা জানতে গত বছর তদন্তে নামেন গোয়েন্দারা। তারা জানতে পারেন, তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ৪৩ লক্ষ ৬০ হাজার ৬০৪ টাকা। হাওড়ার বিভিন্ন ব্যাঙ্কে তাঁর কয়েকটি অ্যাকাউন্টের হদিস মেলে। তার পরেই তাঁর বিরুদ্ধে রাজ্য দুর্নীতি দমন শাখাকে মামলা রুজু করার নির্দেশ দেন নবান্নের কর্তারা।
এর পর বিভিন্ন ব্যাঙ্কে তাঁর ফিক্সড ডিপোজট, গাড়ি-সহ প্রচুর সম্পত্তির খতিয়ান পান দুর্নীতি দমন শাখার তদন্তকারীরা। তাঁদের বক্তব্য, অভিযুক্ত কনস্টেবল যে মাইনে পান, তা থেকে এই বিশাল সম্পত্তির মালিক হওয়া অসম্ভব। এ নিয়ে কলকাতার বিচার ভবনের বিশেষ আদালতে মামলাও হয়। অবশেষে মনোজিৎকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতকে শনিবার আদালতে তোলার কথা জানা গিয়েছে। কীভাবে এই বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি মনোজিৎ করেছেন, তা জানতে তাঁকে হেফাজতে নিতে চেয়ে আবেদনের বিষয়ে জানিয়েছেন তদন্তকারীরা।

আরো পড়ুন