বাংলার ১৮-র বেশি বয়সীরা ১লা মে টিকা পাবেন না, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

বাংলার ১৮-র বেশি বয়সীরা ১লা মে টিকা পাবেন না, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন : দেশের করোনা পরিস্থিতি দিন দিন যখন কঠিন থেকে কঠিনতর হচ্ছে ঠিক সেই সময়ই গত দুদিন আগে কেন্দ্রের তরফ থেকে ঘোষণা করা হয় আগামী ১লা মে থেকে ১৮ বছরের বেশি বয়সীরা টিকা নেওয়ার জন্য ছাড়পত্র পাচ্ছেন। ওই দিন থেকেই দেশজুড়ে ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের টিকাকরণ শুরু হবে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের যুবারা ১লা মে থেকে এই টিকা নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন না। এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কিন্তু কেন? কেন্দ্রের তরফ থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে এবার থেকে রাজ্য সরকারগুলি ইচ্ছে করলে টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি থেকে সরাসরি টিকা কিনতে পারবে। এর আগে টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি থেকে কেন্দ্র ভ্যাকসিন কিনে তা রাজ্যগুলিকে সরবরাহ করতো। আর এই ছাড়পত্র পাওয়ার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, রাজ্যের ৯৩ লক্ষ ডোজ টিকাকরণ করা হয়েছে। রাজ্য সরকার আরও এক কোটি ডোজ কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কিন্তু রাজ্য সরকার নিজস্ব তহবিল থেকে টিকা কেনার সিদ্ধান্ত নিলেও দামের বৈষম্য নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ বুধবার দুপুরে সেরাম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তারা রাজ্য সরকারগুলিকে টিকা সরবরাহ করবে প্রতি ডোজ ৪০০ টাকায় এবং বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে টিকা সরবরাহ করবে প্রতি ডোজ ৬০০ টাকায়। অথচ কেন্দ্র টিকা পাবে ১৫০ টাকা দরে। এই দামের বৈষম্যের জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “এটা ব্যবসা করার সময় নয়। কেন্দ্র সরকারকে টিকা দেবে ১৫০ টাকা দরে আর রাজ্য সরকারগুলিকে টিকা কিনতে হবে ৪০০ টাকা দরে। তা কেন হবে?” এই বিষয়ে কেন্দ্রকে তিনি চিঠি দেবেন বলে জানিয়েছেন। আর এসবের পরিপ্রেক্ষিতেই তিনি জানিয়েছেন আগামী ৫ই মে থেকে রাজ্যে ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের টিকাকরণ করা শুরু হবে এবং এর জন্য আপাতত রাজ্য সরকার ১০০ কোটি টাকার তহবিল তৈরি করেছে।

আরো পড়ুন