বাড়ি ভাড়া দেওয়া নেওয়ায় মানতে হবে এই নিয়ম, ঘোষণা বীরভূম পুলিশের

বাড়ি ভাড়া দেওয়া নেওয়ায় মানতে হবে এই নিয়ম, ঘোষণা বীরভূম পুলিশের

লাল্টু : বীরভূম জেলা পুলিশ এবং বীরভূম জেলা প্রশাসনের তরফে শনিবার সকাল থেকে বীরভূমের প্রায় প্রতিটি থানা এলাকায় মাইকিং করে ঘোষণা করা হয় বাড়ি ভাড়া দেওয়া অথবা নেওয়ার ক্ষেত্রে কতগুলি নিয়ম মানতে হবে বাড়ির মালিক এবং ভাড়াটিয়াকে। এই ঘোষণার সাথে সাথেই প্রশাসনের তরফ থেকে জারি করা এই নির্দেশিকা কার্যকর হয়েছে। আগামী দিনে বাড়ির মালিক এবং ভাড়াটিয়াদের কি কি নিয়ম মানতে হবে চলুন দেখে নেওয়া যাক।

বীরভূম জেলা পুলিশ এবং বীরভূম জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, মালিককে বাড়ি, লজ অথবা অন্য কোন থাকার জায়গা ভাড়া দেওয়ার সময় ভাড়াটিয়ার সমস্ত পরিচয়পত্র এবং অন্যান্য নথি খতিয়ে দেখে নিতে হবে। পাশাপাশি ওই ভাড়াটিয়াকে তার পরিচয় পত্র এবং অন্যান্য নথির কাগজপত্রের দু’কপি জেরক্স বাড়ির মালিককে জমা করতে হবে। পরিচয়পত্রের নথি হিসাবে ভোটার আইডি কার্ডের জেরক্স এবং আধার কার্ডের জেরক্সের কথা বলা হয়েছে।

বাড়ির মালিককে ভাড়াটিয়ার থেকে ওই কাগজপত্র সংগ্রহ করার পর এক সেট নিজের কাছে রেখে দিতে হবে এবং অন্য সেটটি নিকটবর্তী থানায় জমা দিতে হবে। সেক্ষেত্রে কোন বাড়ির মালিক যদি সিউড়ি থানার অন্তর্গত হন তাহলে তাকে কাগজপত্র সিউড়ি থানায় জমা দিতে হবে অথবা দুবরাজপুর থানার অন্তর্গত হলে দুবরাজপুর থানায় জমা দিতে হবে।

এর পাশাপাশি বীরভূম জেলা পুলিশের তরফ থেকে প্রচার করে জানানো হয়েছে, বাড়ি ভাড়া দেওয়ার সময় কোন ক্ষেত্রে যদি কোন কিছু সন্দেহজনক মনে হয় তাহলে যেন সঙ্গে সঙ্গে নিকটবর্তী থানায় তা জানানো হয়। থানার ল্যান্ডফোন নম্বর অথবা যেকোনো অফিসারের নম্বরে ফোন করে জানানো যেতে পারে।

বীরভূমের প্রতিটি থানার যোগাযোগ নম্বর

প্রসঙ্গত, বীরভূম পুলিশের তরফ থেকে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে দিন কয়েক আগেই নিউটাউনে ঘটে যাওয়া ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে। যেখানে দুই কুখ্যাত দুষ্কৃতী ওই আবাসনে ভাড়া নিয়ে মাথা গুঁজে ছিলেন। ওই দু’জনকে ধরার জন্য কলকাতা এসটিএফ হানা দিলে দুই পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময় হয়। যে ঘটনায় ওই দুই দুষ্কৃতী প্রাণ হারান। তবে এর পাশাপাশি এসটিএফের স্পেশাল অফিসার কার্তিক মোহন ঘোষ আহত হন।

আরো পড়ুন