বাম কংগ্রেস ও গণতান্ত্রিক জোটের নির্বাচনী প্রচার খয়রাশোলে 

বাম কংগ্রেস ও গণতান্ত্রিক জোটের নির্বাচনী প্রচার খয়রাশোলে 

সেখ রিয়াজুদ্দিন,বীরভূম:- নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৮ই জুলাই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচন। এবারের এই নির্বাচনে শাসক দলকে তিল মাত্র জায়গা না ছাড়ার অঙ্গীকার করে জোটবদ্ধ হয়ে ডানপন্থী দল কংগ্রেসকে সাথে নিয়ে ভোটে প্রতিদ্বন্দ্ধিতার ময়দানে নেমেছে বামেরা। এবারে তাদের শ্লোগানে “চোর মুক্ত পঞ্চায়েত গড়ার লক্ষ্যে এবং মানুষের পঞ্চায়েত গড়তে”- জোর কদমে নির্বাচনী প্রচারে শাসকদল বিরোধী জোট খয়রাশোলের গোষ্ঠ ডাঙ্গাল ময়দানে একটি নির্বাচনী প্রচার সভা করলেন রবিবার।সভার শুরুতেই খয়রাসোল তেমাথা মোড় থেকে গোষ্ট ডাঙ্গাল মাঠ পর্যন্ত বাদ্যযন্ত্র সহ সুসজ্জিত বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়।মঞ্চে বাম জমানায় খয়রাসোল ব্লক এলাকায় উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরেন বাম নেতৃত্ব। হিংলো নদীর উপর হজরতপুর সেতু, বর্ধমান- বীরভূম সংযোগ স্থাপনে ভীমগড়ে অজয় সেতু, এলাকার দুই সাহিত্যিক শৈলজানন্দ ও ফাল্গুনী মুখোপাধ্যায় এর নামাঙ্কিত খয়রাসোল কলেজ সহ অন্যান্য কাজের নিদর্শন তুলে ধরেন।সেই সাথে তৃনমুল সরকারের দুর্নীতি,স্বজনপোষন,চুরি অপশাসন নিয়ে তৃনমুল সরকারকে তুলোধোনা করেন।নেতৃত্বরা লুঠের পঞ্চায়েত ভেঙ্গে মানুষের পঞ্চায়েত গড়তে আসন্ন ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনে জোটের প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান। এদিনের প্রধান বক্তা হিসেবে মিনাক্ষী মুখার্জী তার বক্তব্যে বলেন তৃণমূল নামক দলটি তাদের নানান দূর্নীতির ফলে ঝুঁকে পড়ছে সেখানে পুলিশের একাংশ তাদের ঠেকনার কাজ করছে। এছাড়া রাজ্যে ভূয়ো জবকার্ড, ১০০ দিনের কাজের টাকা মারা, চাকরি চুরি ইত্যাদি তৃণমূল কংগ্রেসের দূর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেখা যায়।
এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন সিপিআইএম যুব সংগঠনের রাজ্য সভানেত্রী মীনাক্ষী মুখার্জী, সিপিআইএম পলিট ব্যুরোর সদস্য তথা প্রাক্তন সাংসদ ডক্টর রাম চন্দ্র ডোম, ফরোওয়ার্ড ব্লকের প্রাক্তন বিধায়ক বিজয় বাগ্দী, সিপিআইএম জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য শীতল বাউড়ী,সিপিআইএম এর প্রাক্তন জেলা সম্পাদক তথা বর্ষীয়ান নেতা দিলীপ গাঙ্গুলী,খয়রাসোল এরিয়া সম্পাদক দিলীপ গোপ,সমীর রায় সহ কংগ্রেস ও সিপিআইএম-এল লিবারেশন নেতৃত্ব।

আরো পড়ুন