বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন অনুব্রত মন্ডলের ভাইপো সুমিত মন্ডল

বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন অনুব্রত মন্ডলের ভাইপো সুমিত মন্ডল

নিজস্ব প্রতিবেদন : বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল অপ্রত্যাশিত ফলাফল করার পরই রাজ্যের অধিকাংশ জায়গাতেই শুরু হয়েছে দলবদল। অজস্র বিজেপি এবং অন্যান্য রাজনৈতিক দলের কর্মী-সমর্থকদের তৃণমূলে নাম লেখাতে দেখা যাচ্ছে। বীরভূমের এই ঘটনার ব্যতিক্রম কিছু নয়। প্রতিনিয়ত বিজেপি এবং অন্যান্য রাজনৈতিক দলের কর্মী সমর্থকরা তৃণমূলের নাম লেখানোর জন্য ভিড় জমাচ্ছেন। আর এই সকল নেতাকর্মীদের মধ্যেই শনিবার তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন ঘটলো বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের ভাইপোর।

অনুব্রত মণ্ডলের দূর সম্পর্কের ভাইপো সুমিত মন্ডল ২০১৯ সালে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। বোলপুরের রেল ময়দানে বিজেপির অনুষ্ঠিত একটি সভায় তার এই যোগদান ঘিরে বঙ্গ রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে যায়। যদিও সেই সময়ে অনুব্রত মণ্ডল দাবি করেছিলেন তার কোন ভাইপো নেই। তবে বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের অপ্রত্যাশিত ফলাফলের পর সুমিত মন্ডলের প্রত্যাবর্তন ঘটলো তৃণমূলে।

২০১৯ সালে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর বিজেপির তরফ থেকে তাঁকে জেলা যুব মোর্চার গুরুত্বপূর্ণ পদ দেওয়া হয়েছিল। যুব মোর্চার গুরুত্বপূর্ণ পদ পেয়ে তাকে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ঝড় তুলতে দেখা গিয়েছিল বিজেপির হয়ে প্রচারে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে তিনি সিউড়ির রাস্তায় তৃণমূলের স্লোগান ‘খেলা হবে’কে ধার করে ঝড় তুলেছিলেন। তবে এসবের পর শনিবার তিনি বোলপুরের তৃণমূল দলীয় কার্যালয় মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহার হাত ধরে তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করলেন।

সুমিত মন্ডলকে তৃণমূলের ফিরিয়ে মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিংহ জানান, “ভুল করে বিজেপিতে চলে গিয়েছিল। ঘরের ছেলে ঘরে ফিরে আসায় আমরা তাকে স্বাগত জানিয়েছি।” অন্যদিকে সুমিত মন্ডল জানিয়েছেন, “অন্য দলে চলে যাওয়ার কারণে ঘরোয়া সম্পর্কে ফাটল তৈরি হয়েছিল। তাই স্বেচ্ছায় ব্যক্তিগত কারণেই তৃণমূলের ফিরে আসা।”

আরো পড়ুন