বিজেপি সাংগঠনিক বৈঠকে হাজির লকেট, কর্মীদের একাধিক বার্তা

বিজেপি সাংগঠনিক বৈঠকে হাজির লকেট, কর্মীদের একাধিক বার্তা

রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোটের আগে জেলার সাংগঠনিক পরিকাঠামো মজবুত করতে ও কর্মীদের মনোবল বুঝতে জেলায় জেলায় সাংগঠনিক বৈঠকে বঙ্গ বিজেপি। কাল বর্ধমানের পর আজ বীরভূম ও বোলপুর সাংগঠনিক জেলা কমিটির সাথে বৈঠকে বসেন রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদিকা তথা হুগলীর সাংসদ লকেট চ্যাটার্জী।উপস্থিত ছিলেন রাজ্য বিজেপির সহ-সভাপতি শ্যামাপদ মন্ডল,দুর্গাপুর পশ্চিমের বিধায়ক তথা রাজ্য সম্পাদক লক্ষন ঘড়ুই,বোলপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি মাননীয় সন্ন্যাসী চরন মন্ডল সহ বীরভূম জেলার একমাত্র বিজেপি বিধায়ক অনুপ সাহা সহ স্থানীয় নেতৃত্ব।

বিধানসভা ভোটে ভরাডুবির পর বঙ্গ বিজেপি আবারও সাংগঠনিক দূর্বলতা সরিয়ে উঠে দাড়াতে চাইছে। এবারে তাদের লক্ষ্য ২৩-এর পঞ্চায়েত ভোট। সেনিয়ে কর্মীদের দায়িত্ব কি হবে, কিভাবে মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয় এই বৈঠকে। পাশাপাশি সাংগঠনিক দিক আরও মজবুত করতে হবে বলেও জানান হুগলির সাংসদ। এই মূহুর্তে বিধানসভার নিরিখে রাজ্যে বিরোধী দলের আসনে রয়েছে বিজেপি। সুতরাং আগামীদিনে শাসক দলের লড়াইয়ে যে বিরোধিতার আওয়াজ তুলতে হবে সেকথাও জানিয়ে দেন তিনি।

এদিন বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে একাধিক তোপ দাগলেন লকেট। এদিন তিনি বলেন একে একে সমস্ত তৃণমূল নেতারাই শ্রীঘরে ঢুকবে কয়লা পাচার, বালি পাচার, গরু পাচার বিভিন্ন কান্ডে। দলটা দুর্নীতিতে ভরে গেছে। পাশাপাশি তিনি তৃণমূলে যোগদান করা নিয়েও বলেন কে গেল তাতে কিছু এসে যায় না। তিনি বলেন, ২০২৪ এর লোকসভা ভোটে বিজেপির জয় নিশ্চিত। আবারও নরেন্দ্র মোদি আবার ক্ষমতায় আসবেন। প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে বসবেন।

আরো পড়ুন