বিরল অস্ত্রোপচার করে ফের খবরের শিরোনামে রামপুরহাট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

বিরল অস্ত্রোপচার করে ফের খবরের শিরোনামে রামপুরহাট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

ফের বিরল অস্ত্রোপচারের করে নজির তৈরি করলো বীরভূমের রামপুরহাট গভমেন্ট মেডিকেল কলেজ এবং হাসপাতাল। জানা গিয়েছে, রামপুরহাটের মাসড়ার কাপাসপাড়ার বাসিন্দা নারায়ন মির্দা বিগত দেড় বছর ধরে পাকস্থলীর সমস্যায় ভুগছিলেন। ৩৯ বছর বয়সী নারায়ন মির্দার পাকস্থলীতে আলসার দেখা যায়। ফলে যা খাবার খাচ্ছিলেন তা বমি হয়ে যাচ্ছিল। একই সাথে ছিল পেটে অসহ্য ব্যাথা। দীর্ঘদিন ধরে এই গ্যাস্ট্রিক আলসারের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ডাক্তার দেখিয়েও কোনো সুরাহা হয়নি তার।

সব শেষে তিনি রামপুরহাট মেডিকেল কলেজে আসেন তিনি। সেখানে চিকিৎসকের পরামর্শ মত অপারেশনের ব্যবস্থা করা হয় তার। গত ৮ই জুলাই “গ্যাসট্রিক আউটলেট অবস্ট্রাকশন”নামে এই রোগীর অস্ত্রোপচার করে মেডিকেল কলেজের ৩জন চিকিৎসক। প্রায় সাড়ে পাঁচ ঘন্টা ধরে চলে অস্ত্রোপচার করে সফল হন তারা। ডঃ সৌরভ মাজির নেতৃত্বে তিন জনের টিমে ছিলেন ডঃধীরাজ অঞ্চালিয়া এবং ডঃ অমিতাভ দত্ত।

মধ্যবিত্ত পরিবারের নারায়ন মির্দা শেষদিকে বাঁচার আশাই ছেড়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু রামপুরহাট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল তাকে আবার পুনঃজন্ম দিয়েছে। কারণ
যে অপারেশন এতদিন ধরে কলকাতা মত বড় শহরের নামজাদা হাসপাতাল, নাসিংহোমে হত, সেই অপারেশন এখন রামপুরহাট মেডিকেল কলেজে সম্ভব হচ্ছে। অস্ত্রোপচারের সমস্ত সরঞ্জামও মেডিকেল কলেজে পাওয়া যাচ্ছে। ফলে উপকৃত হচ্ছেন নারায়ন বাবুর মত এলাকার মানুষজন। এর জন্য নারায়ন মির্দার পরিবার অবশ্য ধন্যবাদ জানিয়েছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তবে বর্তমানে নারায়ন বাবু এখন সুস্থ। আজ বৃহস্পতিবার তাকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া হয়েছে বলে হাসপাতাল সুত্রে খবর।

আরো পড়ুন