‘বিরোধীদের কুঁড়ি ফুটবে না’, পৌর ভোটের আগে হুঁশিয়ারি অনুব্রত মণ্ডলের

‘বিরোধীদের কুঁড়ি ফুটবে না’, পৌর ভোটের আগে হুঁশিয়ারি অনুব্রত মণ্ডলের

নিজস্ব প্রতিবেদন : ভোট এলেই বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে তারাপীঠে তারা মায়ের পুজো দিতে দেখা যায়। সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে বৃহস্পতিবার হঠাৎ তিনি তারাপীঠে হাজির হন তারা মায়ের পুজো দেওয়ার জন্য। সেখানে পৌরসভা ভোটের প্রসঙ্গ উঠলে তিনি বলেন, ‘বিরোধীদের কুঁড়ি ফুটবে না’।

তারাপীঠে পুজো দিতে এসে অনুব্রত মণ্ডল এদিন তার এই বক্তব্যের মাধ্যমে বোঝাতে চেয়েছেন, ফুলের যেমন কুঁড়ি না ফুটলে ফুল হয় না, ঠিক তেমনি পৌর নির্বাচনে বিরোধীদের কুঁড়ি ফুটবে না অর্থাৎ তারা আসন পাবে না। তিনি বলেন, “কুঁড়ি থাকবে, কুঁড়ি ফুটবে না। আমি তো বললাম কুঁড়ি হবে কিন্তু ফুটবে না। পাপড়িই বেরোবে না।”

যদিও অনুব্রত মণ্ডলের এই বক্তব্যের পাল্টা বিজেপির বীরভূম জেলা সভাপতি ধ্রুব সাহা জানিয়েছেন, “অনুব্রত মণ্ডলের যদি বুকের পাটা থাকে তাহলে নমিনেশন করতে দিয়ে ভোট হতে দিক। তৃণমূলের পাঁকেই বিজেপির পদ্মফুল ফুটবে। তৃণমূল তো এখন পাঁকে পরিণত হয়ে গিয়েছে। চোর, ছ্যাচোর, ডুবলিকেট মাল সবাই তৃণমূলে বড় বড় পদ পেয়ে যাচ্ছে। তাই এটা পাঁকে পরিণত হয়েছে আর সেই পাঁকেই বিজেপির পদ্মফুল ফুটবে।”

অনুব্রত মণ্ডল এদিন তারাপীঠে পুজো দেওয়া নিয়ে বলেন, “মা না ডাকলে আমি আসি না। আজ যেহেতু মা ডাকল তাই চলে এলাম। আজ আমাকে মা ডেকেছে তাই আমি এসেছি। মাকে পুজো দেব। তৃণমূল কংগ্রেসের জয় জয়কার হবে।”

এই প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো, যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসেই বীরভূমের পাঁচটি পৌরসভার নির্বাচন হবে। এই সকল পৌরসভার নির্বাচন ঘিরে ইতিমধ্যেই তৎপরতা শুরু করে দিয়েছে অধিকাংশ রাজনৈতিক দল। অনুব্রত মণ্ডল বারংবার দাবি করেছেন, এই সকল পৌরসভার নির্বাচনে বিরোধীরা একটিও আসন পাবে না।

আরো পড়ুন