বীরভূমের হাঁসন বিধানসভার কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী ডাক্তার অশোক চ্যাটার্জি প্রচারেও অভিনবত্ব আনতে বদ্ধপরিকর তৃণমূলের কর্মীরা

এবার ভোট প্রচারে শুধু ছড়া নয়। বিভিন্ন পন্থায় প্রচারে চমক এনেছে তৃণমূল। কখনও ঢাক বাজিয়ে, কখনও বা তাশা বাজিয়ে গ্রামের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত চলছে প্রচার। আর এই অভিনব প্রচারে উৎসুক গ্রামবাসীরাও সালিম হচ্ছেন। জনসংযোগের এই নিত্য নতুন পন্থায় খুশি প্রার্থীরাও। তবে এমন চিন্তাভাবনার ক্ষেত্রে বিরোধীরা কয়েক কদম পিছিয়ে। তারা ছড়ায়, প্রার্থীর নামেই ভরাচ্ছে দেওয়াল।    

বীরভূমের হাঁসন বিধানসভার কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী ডাক্তার অশোক চ্যাটার্জি প্রচারেও অভিনবত্ব আনতে বদ্ধপরিকর তৃণমূলের কর্মীরা। তাই নিখুঁত সৃজনশীলতায় মাধ্যমে প্রতিনিয়ত চলছে প্রচার। এমনিতেই এলাকায় তিনি স্বনামধন্য চিকিৎসক হওয়ার সুবাদে এলাকায় বিশেষ পরিচিত। তাঁর এই পরিচিতি তাঁকে মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। তারপর তিনি কখনও কখনও পায়ে হেঁটে, হাত জোর করে সম্বোধন করছেন। আর এভাবেই ডাক্তারবাবু গ্রামের মানুষের সাথে মিশে যাচ্ছেন প্রচারে গিয়ে। যা দেখে স্বভাবতই খুশি এলাকার মানুষ।

অন্যান্য দিনের মত এদিন ডাক্তার বাবু প্রচার করেন নলহাটি দু নম্বর ব্লকের বারা ১ নং অঞ্চলে। সেখানে লোহাপুর রেলগেট থেকে একটি প্রচার মিছিল শুরু হয়। তারপর সেই মিছিল লোহাপুর বাজার হয়ে উত্তর তারাহাট ,দক্ষিণ তারাহাট, মিরপাড়া হয়ে মন্ডলপাড়ায় পৌঁছায়। সুর্য তখন মধ্য গগণে। সেখানেই এক দলীয় কর্মীর বাড়িতে গিয়ে মধ্যহ্নভোজন সারেন। তবে আগে থেকে কিছু ঠিক ছিল না। যখন যেখানে খাওয়ার সুযোগ হচ্ছে, সেখানেই খাওয়া হচ্ছে বলে জানান তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ডাক্তার অশোক চ্যাটার্জি। তবে এদিনের প্রচারে দলীয় কর্মী-সমর্থক ও মহিলা কর্মীদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত।

আরো পড়ুন