ভুয়ো আইপিএস গ্রেপ্তার বীরভূমে

ভুয়ো আইপিএস গ্রেপ্তার বীরভূমে

নিজস্ব প্রতিবেদন : ভুয়ো IAS অফিসার দেবাঞ্জন দেবের গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকেই রাজ্যের একাধিক জায়গায় একাধিক ভুয়ো আধিকারিক সামনে আসছেন। পুলিশী তল্লাশীতে ইতিমধ্যেই বহুসংখ্যক এমন ভুয়ো আধিকারিক গ্রেপ্তার হয়েছেন। আর এবার এই ভুয়ো আধিকারিক গ্রেপ্তার হওয়ার ঘটনা ঘটলো বীরভূমে। তবে এবারের ঘটনা অন্যান্য ঘটনার থেকে কিছুটা হলেও আলাদা।

শুক্রবার বীরভূমের পাঁড়ুই থানার পুলিশ ভুয়ো IPS অফিসার পরিচয় দিয়ে আসা এক যুবতীকে গ্রেপ্তার করে। ওই যুবতী নিজেকে আইপিএস আধিকারিক পরিচয় দিয়ে বীরভূমের পাঁড়ুই থানার অন্তর্গত বনসংখ্যা অঞ্চলের মাইপুর গ্রামে আসেন। সেখানে এক যুবকের বাড়িতে এসে তার স্ত্রী বলে দাবি করেন। একেবারে ধর্ণা শুরু হয় তার। তবে ওই যুবকের বাড়ির লোকজন তা মানতে রাজি হননি। এর পরেই খবর দেওয়া হয় পাঁড়ুই থানায়। পুলিশ এসে তাকে আটক করে নিয়ে যায়।

ভুয়ো আইপিএস আধিকারিক পরিচয় দিয়ে আসা ওই যুবতীর বাড়ি ওড়িশা। শর্মিষ্ঠা বেহেরা নামে ওই যুবতীকে পাঁড়ুই থানার পুলিশ আটক করার পর জেরা করা হলে তার কথাবার্তায় একাধিক অসঙ্গতি উঠে আসার পরেই তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই যুবতীর কাছ থেকে একাধিক আইপিএস আধিকারিকের নথিপত্র পাওয়া গিয়েছে। তবে সেই সকল নথিপত্র সবই ভুয়ো বলে জানা যাচ্ছে পুলিশ সূত্রে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওড়িশা থেকে আগত ওই যুবতী নিজেকে ওই রাজ্যের একজন পুলিশ আধিকারিক বলে পরিচয় দেন। তিনি দরকারি কাজে পশ্চিমবঙ্গে এসেছেন বলেও জানান। কিন্তু পুলিশ ওই যুবতীর দাবি মতো তথ্য যাচাই করে জানতে পারে ওই যুবতীর দাবি সত্য নয়। এরপরই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে বীরভূমে এমন ঘটনা প্রথম ঘটায় ইতিমধ্যেই তা নিয়ে চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে।

আরো পড়ুন