ভয়ে কৃষি আইন বাতিল করলো কেন্দ্র, অনুব্রত মণ্ডল

ভয়ে কৃষি আইন বাতিল করলো কেন্দ্র, অনুব্রত মণ্ডল

নিজস্ব প্রতিবেদন : গুরু নানকের জন্মদিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সকাল ন’টায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ রাখার সময় বিতর্কিত তিন কৃষি আইন (farmer law) প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণা করেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) এই ঘোষণার পরেই খুশির হাওয়া আন্দোলনরত কৃষকদের মধ্যে।

অন্যদিকে এই কৃষি আইন কেন প্রত্যাহার করা হলো এই নিয়ে দেশজুড়ে শুরু হয় চুলচেরা বিশ্লেষণ। সেই সকল বিশ্লেষণের পাশাপাশি এদিন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal) এই কৃষি আইন বাতিল হওয়া নিয়ে মুখ খুললেন। শুধু মুখ খোলায় নয়, এর পাশাপাশি তিনি এর কারণও জানালেন।

অনুব্রত মণ্ডল এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জানান, “কেন করলো জানেন? সামনে ২৪ শে ইলেকশন আছে। নরেন্দ্র মোদির বিজেপি সরকার রীতিমত ভয় পেয়ে গিয়েছে। যা মন তাই করছে। যে কোন ব্যাপারে অর্ডিন্যান্স নিয়ে আসছে। পার্লামেন্টে আলোচনা করার ক্ষমতা নাই। অর্ডিন্যান্স এনে ঝামেলা করছে। আজকে তো কৃষকরা অনড় ছিল। তাহলে কই বিজেপি সরকারের ধক?”

এর পাশাপাশি তিনি প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন, “কেন প্রাইম মিনিস্টার আজকে তুলে নিল? উনি তো বলেছিলেন আমি তুলবো না। সবকিছুই আস্তে আস্তে বুঝতে পারছেন। বিজেপির অবস্থা সম্পূর্ণভাবে খারাপ। বিজেপি তলানীতে গিয়েছে। সেই তলানীতে যাওয়ার পর এটাই বিজেপির শেষ রাস্তা। কৃষি আইন কেন অনেক কিছু পাল্টাবে। দেশটাকে শেষ করে দিল।”

এর সঙ্গে সঙ্গেই তিনি বলেন, “৬০০ কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বিজেপির চালে কেউ যেন না পড়েন। বিজেপি হটাও, দেশ বাঁচাও। এটাই একটাই স্লোগান। বাধ্য হয়ে ক্ষমা চাইছে। সামনে উত্তরপ্রদেশ, পাঞ্জাবে ভোট আছে। বুঝতে পারছেন, এমনি ক্ষমা চাইছে।”

এর পরেই তিনি বলেন, “মমতা ব্যানার্জিকে সবাই মডেল করছে। মমতা ব্যানার্জি দেখিয়ে দিল একুশের ভোট কিভাবে করতে হয়। মমতা ব্যানার্জিকে দেখে নরেন্দ্র মোদী ফলো করছে। কিন্তু আমার মনে হয় ভারতবর্ষের মানুষ রিঅ্যাক্ট করবে না। ২৪ শে যে খেলা খেলবে তাতে ভারতবর্ষের মানুষ গোল দিয়ে, লাড্ডু খাইয়ে একেবারে বাড়ি পাঠিয়ে দেবে। ভয়ঙ্কর গোল দিবে চব্বিশে। গোল নিতে পারবে না।”

আরো পড়ুন