মেঘ কাটতেই হু হু করে নামছে বীরভূমের তাপমাত্রা

মেঘ কাটতেই হু হু করে নামছে বীরভূমের তাপমাত্রা

মাধব দাস, বীরভূম : দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমের জেলাগুলির মধ্যে বীরভূমে গ্রীষ্মকালে যেমন প্রতি গরম লক্ষ্য করা যায়, শীতকালেও এখানে লক্ষ্য করা যায় অতিশীত। এমনকি শীতকালে এই জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দিন বিশেষে ৬-৭ ডিগ্রিতেও নেমে যায়। নভেম্বর মাসের শেষের দিক থেকেই বীরভূমের শীত অনুভূত হতে শুরু করে।

অন্যান্য বছরের মতো এই বছরও নভেম্বর মাসের মাঝ থেকেই হালকা শীত অনুভূত হতে শুরু করে। কিন্তু পরে সেই শীত সম্পূর্ণ ভাবে আটকে যায়। একাধিক নিম্নচাপের কারণে বীরভূমের বাসিন্দারা হালকা শীতের আমেজ হারাতে শুরু করে। তবে শেষমেষ এই নিম্নচাপ, মেঘ-বৃষ্টি কাটতেই হু হু করে নামতে শুরু করেছে জেলার তাপমাত্রা।

গত সপ্তাহে নিম্নচাপ এবং মেঘলা আকাশের কারণে জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা পৌঁছে গিয়েছিল ২২ ডিগ্রির কাছাকাছি। ডিসেম্বর মাসের শুরুতেই তাপমাত্রা মাসের পরিসংখ্যান ভুলিয়ে দেয়। তবে গত শুক্রবার থেকেই ধীরে ধীরে নামতে শুরু করে তাপমাত্রার পারদ। রবিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পারদ শুক্রবারের তুলনায় কমে ৬ ডিগ্রী। সোমবার সেই তাপমাত্রার পারদ আরও নামল।

রবিবার শ্রীনিকেতন হাওয়া অফিসের তরফ থেকে যে রিপোর্ট দেওয়া হয়েছিল তাতে জানানো হয়েছিল, দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪.১ ডিগ্রী সেলসিয়াস। যদিও এই তাপমাত্রার পারদ নিম্নমুখী হলেও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় এখনো বেশি। রবিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় ১° বেশি ছিল।

অন্যদিকে সোমবার শ্রীনিকেতন হাওয়া অফিসের তরফ থেকে আবহাওয়া সংক্রান্ত যে রিপোর্ট দিয়েছে তাতে জানা যাচ্ছে, এদিন দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ডিগ্রি। এই তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায়। অন্যদিকে গত ২৪ ঘন্টায় বীরভূমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৪.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের তুলনায় ২ ডিগ্রী কম।

অন্যদিকে হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস থেকে জানা যাচ্ছে, আগামী কয়েকদিন জেলায় তাপমাত্রার পারদ আরও নিম্নমুখী হবে। তবে চলতি সপ্তাহে

আরো পড়ুন