যুবনেতার গাড়ি চলল পুলিশের উপর, বাঁচতে বনেটে চাপলেন পুলিশ

যুবনেতার গাড়ি চলল পুলিশের উপর, বাঁচতে বনেটে চাপলেন পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদন : নেতা-নেত্রীদের বিরুদ্ধে ঔদ্ধত্যের অভিযোগ কম নয়। বিভিন্ন জায়গায় তাদের বিরুদ্ধে ঔদ্ধত্যের অভিযোগ ওঠে। ঠিক সেই রকমই অভিযোগ উঠল এক যুব নেতার বিরুদ্ধে। ওই যুবনেতার বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর গাড়ি চালানোর অভিযোগ উঠেছে। যদিও ওই পুলিশকর্মী গাড়ির বনেটে উঠে নিজের প্রাণ বাঁচান।

পুলিশের উপর গাড়ি চালানোর অভিযোগ উঠেছে আম আদমি পার্টির এক যুব নেতার বিরুদ্ধে। সম্প্রতি দিল্লির বাইরে কংগ্রেসকে হারিয়ে পাঞ্জাব দখল করার পর দেশের সর্বত্র নিজের দলকে ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে নেমেছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দল। সেই লক্ষ্য পূরণ করার জন্য সম্প্রতি দেশের বিশাল জাতীয় পতাকা নিয়ে গুজরাতে মিছিল হয় কেজরিওয়ালের নেতৃত্বে। চলতি বছরের শেষের দিকে রয়েছে গুজরাটের বিধানসভা নির্বাচন। সেই নির্বাচনকে পাখির চোখ করেই তারা ময়দানে নেমেছে।

তবে এই লক্ষ্য পূরণে নামলেও সম্প্রতি তাদের দলের গুজরাটের এই যুবনেতার এমন কান্ডে দলের ভাবমূর্তিতে ধাক্কা লাগতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। গুজরাটে আপের যুব সংগঠনের নেতা যুবরাজসিংহ জাদেজাকে পুলিশের উপর গাড়ি চালানোর মারাত্মক অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এমনকি সেই ঘটনার একটি ভিডিও সামনে এসেছে, যা দেখে রীতিমত অবাক সকলে।

এমন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আম আদমি পার্টির যুব নেতার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৭ ধারায় খুনের চেষ্টার মামলা রুজু হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনার মুহূর্তের ভিডিও ওই আপ নেতার গাড়ির ক্যামেরায় বন্দি হয়েছিল। এরপরই ওই নেতার গাড়ির ক্যামেরা এবং মোবাইল ফরেনসিক ল্যাবরেটরীতে পাঠানো হয় পরীক্ষার জন্য।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গান্ধীনগর রেঞ্জের আইজি অভয় চুরাসামা জানিয়েছেন, “মঙ্গলবার বিকেলে গান্ধীনগর পুলিশের সদর দফতরে এসেছিলেন যুবরাজ জাদেজা সহকারী স্কুল শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য চাকরিপ্রার্থীদের সমর্থন দিতে। অনুমতি না থাকায় ওই আপ নেতাকে আটক করা হয়েছিল। পুলিশের সঙ্গে বাদানুবাদের পর ওই আপ নেতা পুলিশের দিকে গাড়ি চালিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। সেই সময় গাড়ির তীব্র গতি কারণে এক পুলিশ কর্মীর ধাক্কা লাগে। প্রাণ বাঁচাতে তিনি বিপজ্জনকভাবে গাড়ির বনেটের ওপর লাফ দেন। গাড়ি ওই পুলিশ কর্মীকে নিয়েই কিছুদূর ছুটে গিয়েছিল। মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটতে পারত, এমনকী ওই পুলিশ কর্মীর মৃত্যু অবধি হতে পারত।”

আরো পড়ুন