রামপুরহাটের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার উদ্যোগে এলাকাবাসীর হাতে তুলে দেওয়া হল পুজোর উপহার

রামপুরহাটের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার উদ্যোগে এলাকাবাসীর হাতে তুলে দেওয়া হল পুজোর উপহার

সুমন্ত সাহা রামপুরহাট :-

গত বারের মত এবারও পুজোর মুখে অসহায় দুঃস্থ মানুষদের মুখে হাসি ফোঁটাতে এগিয়ে এল “দ্য হেল্পিং হেণ্ডস” নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। রামপুরহাট মহকুমার নিশ্চিন্তপুর এলাকার এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা রবিবার রামপুরহাট নিশ্চিতপুর এলাকায় একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা করে। সেখানে রামপুরহাটের নিশ্চিন্তপুর ৩ নং ওয়ার্ডের প্রায় ৩০০ জন অসহায় দুঃস্থ মহিলার পুজোর উপহার স্বরূপ নতুন বস্ত্র তুলে দেওয়া হয়। উপস্থিত ছিলেন শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সৌমেন ভকত, পৌর প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য আব্বাস হোসেন, ১নং ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর সুদেব দাস, শহর তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি অপু ফারুকি সহ অন্যান্য বিশিষ্টজন।

দুর্গাপুজো আসতে হাতে মাত্র আর কিছুদিন। ক্লাব থেকে বাড়ি সবেতেই আয়োজন চলছে ঠিকই। তবে অন্যান্য বারের মত এবার পুজোয় নেই তেমন আড়ম্বর। নিয়ম-বিধিটুকু মেনে পুজো সারতে চাইছেন অনেক পুজো উদ্যোক্তারা।তাই ধীর গতিতেই চলছে পুজোর ব্যবস্থাপনা। করোনার প্রকোপে অর্থনৈতিক সংকট দেখা দিয়েছে সারা দেশ জুড়ে। যার সরাসরি প্রভাব এসে পড়েছে খেটে খাওয়া মানুষগুলোর মধ্যে। এবার তাদেরকেই পুজোর উপহার স্বরূপ নতুন বস্ত্র তুলে দেওয়া হল সংস্থার পক্ষ থেকে। শুধু দুর্গাপূজা নয়, বছরের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে থাকে এই সংস্থা।

এনিয়ে সংস্থার কর্ণধার সুজন রায় জানান, পুজোর সময় বহু পরিবারেরই নতুন পোশাক কেনার ইচ্ছে থাকলেও উপায় হয় না। তার ওপর এবার আবার করোনার জন্য অনেকেই কাজ হারিয়েছেন। লকডাউনের জের বন্ধ উপার্জনের সমস্ত রাস্তাও। এই অবস্থায় তাঁদের মুখে হাসি ফোটাতেই আমাদের এই ছোট উদ্যোগ। তিনি আরও জানান, উৎসব মানেই আনন্দ আর আনন্দই নিয়ে আসে মনের প্রশান্তি। আমারা সকলের মধ্যে যদি আনন্দ ভাগ করে নিতে পারি তাহলে, সেই উৎসব হবে আনন্দের উৎসব।

আরো পড়ুন