রামপুরহাট এগেন্সট করোনা গ্রুপের মানবিক নজির রামপুরহাটে

প্রীতম দাস রামপুরহাট :-

ফেসবুক এখন আর শুধু বন্ধুদের সাথে চ্যাটিং বা ফটো শেয়ারিং এর জন্য নয় বরং ফেসবুক থেকেই প্রতিনিয়ত পরিচালিত হচ্ছে বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম। সমাজের প্রতিনিয়ত ঘটা নানা অন্যায় অবিচার এমনকি মাদকের বিরুদ্ধে এই ফেসবুক থেকেই সংগঠিত হয়ে রুখে দাঁড়িয়েছে অনেক মানুষজন। বর্তমান সময়ে ফেসবুকের মাধ্যমে মানবিক আবেদনের আলোড়ন দেখতে পাই আমরা প্রায়শই। এই ফেসবুক মাধ্যম থেকেই রক্তদান থেকে শুরু করে ফান্ড রাইজিং এর মাধ্যমে অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর এমন নজির এখন আর বিরল নয়।

তেমনি একটি ফেসবুক গ্রুপ রামপুরহাট এগেন্সট করোনা। গ্রুপের সদস্যরা দিন কয়েক আগে জানতে পারে রামপুরহাট শহরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা অনন্ত মণ্ডলের টলি ভ্যানের চুরি যাওয়ার খবর। এরপর অসহায়তার কথা জানতে পেরে নিজেদের উদ্যোগে গ্রুপের সদস্যদের কাছে আর্থিক সহযোগিতার আবেদন রাখেন। গ্রুপের সদস্যদের বিপুল সাড়া মেলে। গ্রুপ থেকে পাওয়া আর্থিক সহযোগিতা নিয়ে অনন্তবাবুর হাতে তুলে দেওয়া হয় নতুন টলি ভ্যান। এনিয়ে গ্রুপের সদস্য চৌধুরী জানান, খবর শুনে ওনার বাড়ি গেলে, ওনার অসহায় অবস্থার কথা জানতে পারি এবং জানতে পারি ঘরে উনি শুধুমাত্র আয় করেন। তার ওপর নির্ভর করে রয়েছে স্ত্রী, মা,দুই মেয়ে। অভাবের সংসার। তাই রামপুরহাট এগেন্সট করোনা গ্রুপের সদস্যরা মিলে অনুদান দিয়ে আজ ওনার হাতে একটি নতুন ভ্যান গাড়ি তুলে দি।সঙ্গে কিছু আর্থিক সাহায্য এবং চাল,ডাল,আটা,ছাতু,বিস্কুট ইত্যাদি খাদ্যসামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। এরকম কাজে এগিয়ে আসার জন্য রামপুরহাট এগেন্সট করোনা গ্রুপের প্রতিটি সদস্যকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

২০২০ সালে করোনা পরিস্থিতিতে শহরের সামগ্রিকভাবে সচেতন করতে এবং যেকোনো প্রয়োজনে পাশে দাঁড়াতে এই গ্রুপটি খোলেন অর্ক রায়। এরপর থেকে ধীরে ধীরে গ্রুপে সদস্যদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। সবাই গ্রুপ থেকে কোনো না কোনোভাবে উপকৃত হয়েছেন। গ্রুপটিতে বর্তমানে মেম্বার প্রায় ১১ হাজারের অধিক। বিনোদন থেকে চিকিৎসা সংক্রান্ত তথ্য সহ সামগ্রিকভাবেই এই গ্রুপ থেকে রামপুরহাট সহ সমগ্র রাজ্যের নানান তথ্যের আদানপ্রদান হয়।

আরো পড়ুন