রামপুরহাট পুলিশের মানবিক মুখ

রামপুরহাট পুলিশ প্রশাসনের মানবিক মুখ

প্রীতম দাস বীরভূম:-

বীরভূমের রামপুরহাট শহরের মূল বাসস্ট্যান্ডে এক দম্পতি অসহায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছিলেন। তাদের মানসিক এবং শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত খারাপ। এই প্রবল ঠান্ডাতেও ওই বাসস্ট্যান্ডেই তাদের রাত কাটাতে হচ্ছিল। অথচ প্রতিদিন ওই রাস্তা দিয়ে হাজার হাজার মানুষ পেরিয়ে গেলেও সেভাবে কারোর চোখে পড়েনি, আবার দেখেও না দেখা। এমত অবস্থায় গতকাল অর্থাৎ রবিবার এলাকার কিছু মানুষ তাদের জন্য কিছু করার উদ্যোগ নেন। এরপর তাদের শীতবস্ত্র এবং খাবার-দাবার দেওয়া হয়। কিন্তু ওই দম্পতির পরিস্থিতি এমনই যে তাদের জন্য তৎক্ষণাৎ কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হলে মৃত্যু অবশ্যম্ভাবী।

এমন পরিস্থিতিতে ওই স্থানীয় বাসিন্দারা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশাসনের কাছে আবেদন জানান যাতে এই দম্পতির জন্য কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। রামপুরহাটের বাসিন্দাদের পক্ষ থেকে এমন আবেদন পেয়েই রামপুরহাট মহকুমার এসডিপিও সায়ন আহমেদ বিষয়টি দেখতে পেয়ে রামপুরহাট থানার আইসি কে পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য বলেন। এর পরেই যুদ্ধকালীন তৎপরতায় শুরু হয় প্রশাসনের। ২৪ ঘন্টা পার হতে না হতেই রামপুরহাট থানার পুলিশ ওই বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছে ওই দম্পতিকে উদ্ধার করে নিয়ে যান চিকিৎসার জন্য।

এদিন রামপুরহাট বাস স্ট্যান্ড থেকে তাদের উদ্ধার করে রামপুরহাট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় বলে জানিয়েছেন পুলিশকর্মীরা। তারপর তাদের পরিবারের খোঁজ চালানো হবে এবং পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তারা। এদিন এই অসহায় দম্পতির পাশে দাঁড়ানোর সময় ছিলেন খোদ রামপুরহাট মহকুমা শাসক সাদ্দাম নাভাস, এসডিপিও সায়ন আহমেদ রামপুরহাট থানার আধিকারিক গণ,সাহায্যের হাত নামে এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এর সদস্য সহ অন্যান্যরা।

আরো পড়ুন