শীতবস্ত্র খুলে ছাতা, বছর শেষে এই ৭ জেলায় বৃষ্টির পূর্বাভাস

শীতবস্ত্র খুলে ছাতা, বছর শেষে এই ৭ জেলায় বৃষ্টির পূর্বাভাস

নিজস্ব প্রতিবেদন : পৌষ মাসের শুরুতে যেভাবে শীতের প্রকোপ লক্ষ্য করা গিয়েছিল, দিন কয়েক যেতে না যেতেই সেই শীত উধাও। শুধু শীত উধাও নয়, পাশাপাশি পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে যে শীতবস্ত্র খুলে এবার ছাতা নেওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী দক্ষিণবঙ্গের অন্ততপক্ষে ৭ জেলায় বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে।

হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী বর্ষবরণের সময় রাজ্যের তাপমাত্রার পারদ ঊর্ধ্বমুখী থাকবে। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার দাপটে আকাশ মেঘলা থাকার পাশাপাশি বৃষ্টির সম্ভাবনার কারণে তাপমাত্রার এই পারদ ঊর্ধ্বমুখী হতে চলেছে। চলতি সপ্তাহের প্রথম দিন থেকেই তাপমাত্রার এই ঊর্ধ্বমুখী পরিস্থিতির সামনে এসেছে। হাওয়া অফিসের তরফে এটাও জানানো হয়েছে, সকাল থেকে কুয়াশার দেখা মিলতে পারে অধিকাংশ জেলায়।

আলিপুর হাওয়া অফিসের আবহাওয়া সংক্রান্ত রিপোর্ট অনুযায়ী, সোমবার দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এই তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় ৩° বেশি। গত ২৪ ঘন্টায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৬.৪ ডিগ্রি। যা তাপমাত্রা যদিও স্বাভাবিক।

শ্রীনিকেতন হওয়া অফিসের রিপোর্ট অনুযায়ী সোমবার দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের তুলনায় ২ ডিগ্রি বেশি। গত ২৪ ঘন্টায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই তাপমাত্রা স্বাভাবিক।

অন্যদিকে হাওয়া অফিসের তরফ থেকে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে তাপমাত্রার পারদ আরও ঊর্ধ্বমুখী হবে। এই সপ্তাহে দিন যত এগিয়ে আসবে তাপমাত্রার পারদ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এর পাশাপাশি মঙ্গল থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গের ৭ জেলায় স্থানবিশেষে বৃষ্টির পূর্বাভাসও দেওয়া হয়েছে হাওয়া অফিসের তরফ থেকে। যেসকল জেলাগুলিতে এই বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে সেই সকল জেলাগুলি হল পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, ঝাড়গাম ও পশ্চিম মেদিনীপুর। মূলত পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে বঙ্গোপসাগর থেকে জলীয়বাষ্প প্রবেশ করার কারণেই এই বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

আরো পড়ুন