হারিয়ে যাওয়া তিলের নাড়ু নারকেলের নাড়ু চিড়ের বা মুড়ির মোয়া ফেরি করে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন ষাটোর্ধ্ব মন্টু বাবু

হারিয়ে যাওয়া তিলের নাড়ু নারকেলের নাড়ু চিড়ের বা মুড়ির মোয়া ফেরি করে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন ষাটোর্ধ্ব মন্টু বাবু

নদীয়া:- একসময় তাঁতের উপর নির্ভর করে স্ত্রী সহ তিন ছেলে দুই মেয়ের মুখে অন্ন যোগানো এবং পড়াশোনা শিখিয়েছেন শান্তিপুর এক নম্বর কলোনির বাসিন্দা মন্টু বিশ্বাস। মেয়েদের বিবাহ এবং ছেলেদের স্বনির্ভর হওয়ার পর আবারও তিনি তার স্ত্রীকে নিয়ে নতুন ভাবে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন। তার মতন তাঁত শিল্পও বেহাল ।সকলেই ভুলেছে অতীত। তবে তাতে এতোটুকু ভেঙে পড়েননি তিনি। বর্তমান ব্যস্ত সমাজে সাবেকি রীতিনীতি হারিয়েছে, আর তারই পুনরুদ্ধারের মাধ্যমে নতুন জীবন পেয়েছে তিনি। মুড়ি চিরে তিল খই নাড়ু দিয়ে তার স্ত্রী বানান মোয়া নাড়ু, সারাদিন মাথায় করে ঘুরে অনায়াসে বিক্রি করে ফেলেন সেগুলো। ক্লান্তিহীন মন্টু বাবুর দাঁড়ানোর সময় নেই। যোগাযোগের কোনো নাম্বারই নেই, তাই হয়তো অধীর আগ্রহে পথের পাশে অনেকেই প্রতীক্ষায় থাকেন নাড়ু মোয়া কেনার জন্য, আকার আকৃতি উপাদান যাইহোক দাম একটাই ৫ টাকা। ভুবন বাদ‍্যকরের মতন তার সুরেলা কণ্ঠ নয়, গাইতে পারেন না গানও। তবে এই বয়সে অদম্য তার ইচ্ছাশক্তি।

আরো পড়ুন