ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদ অনুব্রত ঘনিষ্ঠ নেতাকে

বীরভূমে ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনাই তদন্তভার নিয়েছে সিবিআই। তদন্তে তৃনমুল জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডল সহ তার ঘনিষ্ঠ বেশ কিছু নেতার নাম উঠে এসেছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনা পুরো বিবরণ পেতে চাইছে সিবিআই। সেইমত এবার অনুব্রত ঘনিষ্ঠ তৃণমূল নেতা সুদীপ্ত ঘোষকে জিজ্ঞাসাবাদ করল সিবিআই আধিকারিকরা। সুত্রের খবর, গতকাল রাত্রে সিবিআই ফোন দুর্গাপুরে সিবিআই এর ক্যাম্পে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠান হয় ওই তৃনমুল নেতাকে। প্রসঙ্গত, ভোটের রেজাল্ট এর দিন অনুব্রত মন্ডল কার সাথে ফোন কথা বলেছেন, তাদের একটা সম্পূর্ণ তালিকা তৈরি করেছে সিবিআই এর আধিকারিকরা। এবার তাদের সকলকেই জিজ্ঞাসাবাদ করতে চলেছে। তবে এরমধ্যে বেশ কয়েকজন সাংবাদিকও আছে বলে খবর।

গত বছর ২১ শে বিধানসভা ভোটের ফল প্রকাশিত হওয়ার পর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত-সহ বীরভূমের দিকে দিকে ভোট পরবর্তী হিংসা ঘটনা ঘটতে থাকে। সেই দিনই ইলামবাজার থানার গোপালনগর গ্রামে খুন হন বিজেপি কর্মী গৌরব সরকার । এই মামলায় ২৪ জন তৃণমূল নেতা-কর্মীর নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়। অভিযোগ খতিয়ে দেখে হাইকোর্ট নির্দেশে দেয় এই মামলার তদন্ত করবে সিবিআই।

তবে এই ঘটনাই বার বার তলব করা হয়েছে বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মন্ডলকে। প্রতিবারই অসুস্থতা দেখিয়ে সিবিআই দপ্তরে হাজিরা এড়িয়ে গিয়েছেন তিনি। এবার সেই মামলায় এদিন জিজ্ঞেসাবাদ করল তৃণমূল নেতা সুদীপ্ত ঘোষকে। বর্তমানে সুদীপ্ত ঘোষ বীরভূম জেলা তৃণমূলের সম্পাদক পদে রয়েছেন। তিনি অনুব্রত মন্ডলের সব থেকে ঘনিষ্ঠ দের মধ্যে একজন বলেও জানা গিয়েছে। এদিন সিবিআই তাকে দুর্গাপুরের ক্যাম্পে দীর্ঘ চার ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তবে কি কি কথা হয়েছে সেব্যাপারে কোনো পক্ষেই কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

অন্যদিকে ফের আরও একবার ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় সিবিআই এর মুখোমুখি হলেন না অনুব্রত। তবে সম্প্রতি, গোরু পাচার কাণ্ডে নিজাম প্যালেসে স্বেচ্ছায় হাজির হয়েছিলেন তৃণমূল নেতা। এরপর বোলপুরের বাড়িতে ফিরেছেন তিনি। এবার ফের তাঁকে তলব করা হল।

আরো পড়ুন