গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা প্রেমিক যুগলের

গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা প্রেমিক যুগলের

শেখ ওলি মহম্মদ :-

দুজনেই একে অপরকে ভালবাসত। কিন্তু বাড়ির লোকজন জানত না। হয়তো তাঁরা ভেবেছিল বাড়ির লোকজন প্রেমের সম্পর্ক মেনে নেবে না বলে অকালে ঝরে গেল দুটি তরতাজা প্রাণ। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূম জেলার দুবরাজপুর ব্লকের লোবা পঞ্চায়েতের ঝিরুল গ্রামের একটি ইট ভাটার পাশে। আজ ভোরবেলায় ভাটার শ্রমিকরা এসে দেখেন ঝিরুল গ্রামের ২০ বছর বয়সী অবিনাশ বাউরী ও ১৬ বছর বয়সী নন্দিতা বাউরী নামে দুজন তরুন তরুণী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। খবর জানাজানি হতেই ভীড় জমান এলাকাবাসীরা। নন্দিতা বাউরী দশম শ্রেনীতে পড়াশুনা করত। আর অবিনাশ বাউরী দিনমজুরের কাজ করত। জানা যায়, তাঁদের দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু নন্দিতা বাউরীর মা সুভদ্রা বাউরী জানান, আমরা প্রেম সমন্ধে কিছু জানতাম না। ভোরে উঠে দেখি বিছানায় নেই। আশেপাশে খোঁজ করি তবুও পাইনি। অবশেষে খবর পাই গ্রামের ইট ভাটার পাশে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। অন্যদিকে অবিনাশ বাউরীর বাবা গোপাল বাউরী জানান, আমরা কিছু জানতাম না। গরম থাকার জন্য বাড়ির ছাদে ঘুমাতে। কিন্তু কবে বাড়ি থেকে বেরিয়ে এরকম সিদ্ধান্ত নিয়েছে জানতে পারি নাই। ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দুবরাজপুর থানার পুলিশ। মৃতদেহ দুটি প্রথমে দুবরাজপুর গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তারপর ময়না তদন্তের জন্য সিউড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আরো পড়ুন