তাপপ্রবাহে এগিয়ে এলো গরমের ছুটি, দিনক্ষণ ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী

তাপপ্রবাহে এগিয়ে এলো গরমের ছুটি, দিনক্ষণ ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন : মার্চ মাসের শুরু থেকে ধাপে ধাপে রাজ্যের অধিকাংশ জেলার তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলেও এপ্রিলে তা চূড়ান্ত পর্যায়ে এসে পৌঁছায়। গত কয়েকদিন ধরে রাজ্যের কয়েকটি জেলা বাদ দিয়ে অধিকাংশ জেলাতেই চলছে তাপপ্রবাহ। এই তাপপ্রবাহের কথা মাথায় রেখে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে স্কুলপড়ুয়াদের গরমের ছুটি এগিয়ে আনা হলো। এই গরমের ছুটি বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করলেন।

তাপপ্রবাহের কারণে পড়ুয়ারা যাতে কোনরকম অসুবিধা অথবা অসুস্থ হয়ে না পড়ে তার জন্য বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু এবং শিক্ষাসচিবকে নির্দেশ দিলেন গরমের ছুটি এগিয়ে আনার। শুধু নির্দেশ নয়, এর পাশাপাশি তিনি এদিন কবে থেকে গরমের ছুটি পড়বে তাও জানিয়ে দিলেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দেন, আগামী ২ মে থেকে রাজ্যে গরমের ছুটি পড়বে। তবে ক’দিন এই গরমের ছুটি চলবে তা এখনই জানানো হয়নি।

গরমের ছুটি এগিয়ে আনার পরিপ্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বক্তব্য রাখার সময় বলেন, “প্রচণ্ড গরম পড়েছে। আমার কাছে খবর আসছে, প্রচণ্ড গরমে অনেক পড়ুয়া অসুস্থ হয়ে পড়ছে। তাই গরমের ছুটি এগিয়ে আনা হোক।” এর পরেই তিনি শিক্ষা দপ্তরকে এই নির্দেশ দেন।

এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশঙ্কা মে মাসে করোনা প্রকোপ বাড়তে পারে। এমন পরিস্থিতিতে স্কুল বন্ধ থাকার পক্ষেই সওয়াল করেছেন তিনি। তবে স্কুল কত দিন বন্ধ থাকবে অর্থাৎ গোটা মে মাস নাকি জুন মাসেরও কিছুদিন তা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষা দপ্তর। অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গরমের ছুটি ঘোষণা করে দেওয়ায় আরও একটি প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

শিক্ষা দপ্তরের তরফ থেকে মে মাসের ১০ তারিখের মধ্যে স্কুলে স্কুলে পরীক্ষা সেরে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিল। কিন্তু ২ মে থেকে গরমের ছুটি পড়ে যাওয়ায় কিভাবে পরীক্ষা হবে তা নিয়ে চিন্তায় স্কুল কর্তৃপক্ষ। মনে করা হচ্ছে গরমের ছুটি পড়ে যাওয়ার কারণে নির্ধারিত যে দিনগুলিতে পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল তা আর হবে না।

আরো পড়ুন